বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মীরসরাই-মলিয়াইশ সড়ক ভেঙ্গে পড়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : মীরসরাই পৌর সদর হয়ে বয়ে যাওয়া মীরসরাই টু মলিয়াইশ সড়কটি দিয়ে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে গর্ত আর ভাঙ্গাচোরা দশার জন্য জনদুর্ভোগ অব্যাহত চলছিল। তার উপর এবারের টানা বর্ষণের পর রবিবার (১৪ জুলাই) রাতে সড়কের বিশাল অংশ ধ্বংসে গিয়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে মীরসরাই মলিয়াইশ সড়ক যোগাযোগ। 

মঘাদিয়া ও মিঠানালা ইউনিয়নের অনেকগুলো গ্রাম ও মীরসরাই পৌরসভার কয়েকটি গ্রামের লক্ষ প্রায় মানুষের চলাচলের বিকল্পহীন সড়ক মীরসরাই-মলিয়াইশ সড়ক। দীর্ঘদিন এই সড়কের খানাখন্ড, গর্ত আর ভাঙ্গাচোরা দশার দরুন জনদূর্ভোগের অন্তঃ নেই। এর মধ্যে এবারের বর্ষনে রোববার গভীর সাতে এই সড়কের কালামিয়ার দোকানের পশ্চিম পাশ্বস্থ বাইন্যার টেক নামক স্থানের প্রায় ২০ থেকে ৩০ ফুট জুড়ে ধ্বসে যাওয়ায় সিএনজি ও অন্যান্য যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে যায়। সোমবার (১৫ জুলাই) দিনভর মলিয়াইশ, মিঠানালা, কচুয়া, মঘাদিয়া, সাধুরবাজার, তিনঘরিয়াটোলা, উপকূলাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামের হাজার হাজার মানুষের বিকল্পহীন এই সড়ক দুর্ভোগে পতিত হয়ে দৈনন্দিন কাজ সেরেছেন। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী, নারী পুরুষ সকলে হাটু থেকে কোমর পানি মাড়িয়ে ভাঙ্গা অংশ পার হয়ে পায়ে হেটে পাড়ি দিয়েছে সড়ক। ভুক্তভোগী মীরসরাই পৌরবাজারের ডাঃ নজরুল ইসলাম জানায় সকালে দেখছি সিএনজি যাচ্ছে না মীরসরাই। এরপর পায়ে হেটে যাত্রা শুরু করে ২ কিলোমিটার পেরিয়ে এই ধ্বসে যাওয়া অংশ লুঙ্গি পরে পার হয়ে বাজারে এসে আবার পেন্ট পরি। তবে নারী ও শিশু, কিশোর, কিশোরী, তরুণীদের ভোগান্তি অনেক বেড়ে গেছে। উক্ত ধ্বসে যাওয়া এলাকার জনপ্রতিনিধি মীরসরাই পৌরসভার ৮ নংওয়ার্ড এর কাউন্সিলর কোব্বাত মিয়া বলেন সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি রাস্তা জুড়ে এমন বিশাল ভাঙ্গন। আবার বিকেল নাগাদ এই ভাঙ্গা অংশ বড় হয়ে আরো ব্যাপক আকার লাভ করে। তিনি বলেন দিনভর নারী পুরুষ অনেকে খুব কষ্ট করে এই রাস্তা পাড়ি দিয়েছে। অনেকে প্রায় ১০ কিলোমিটারের ঘুরো পথে সদরে যাতায়াত করছে। এতে দুর্ভোগ বেড়েছে অনেক গুণ। এই বিষয়ে পৌরসভার পক্ষ থেকে কোন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি সকালেই মেয়রকে জানিয়েছি। তিনি ও ঘটনাস্থলে এসে পরিদর্শন করেছেন। এই বিষয়ে পৌরমেয়র গিয়াস উদ্দিন বলেন আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখেছি এই ধ্বসে যাওয়া অংশে একটি পুরোনো ছরা ছিল। মন্ডল পাড়া থেকে এই ছরা শেখের তালুক খালে গিয়ে পড়েছে। স্থানীয় কিছু মানুষ এই ছরার গতিপথ বন্ধ করে দেয়ায় এমন ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। তবে তিনি আপাতত মানুষ চলাচলের জন্য সড়ক চালুর ব্যবস্থা শীঘ্রই করবেন বলে জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ