শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

খুলনা-কলকাতা রুটের ট্রেনে যশোরে যাত্রী মিলছে না

যশোর সংবাদদাতা: খুলনা-বেনাপোল-কলকাতা রুটে সরাসরি চলাচলকারী ট্রেন ‘বন্ধন’ এক্সপ্রেসে যশোর স্টপেজে দিনদিন যাত্রীর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। মাত্র ৪ ঘণ্টায় কলকাতায় যাতায়াতের সুযোগ থাকলেও অতিরিক্ত ভাড়ার কারণে ভ্রমনপিপাসু মানুষের এ ট্রেনের প্রতি কোনো আগ্রহ থাকছে না। যে কারণে এ স্টপেজে যাত্রীর সংখ্যা হতাশাজনক। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার যশোর স্টেশন থেকে মাত্র ৯ জন যাত্রী নিয়ে বন্ধন কলকাতার উদ্দেশে রওনা হয়।
২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর খুলনা-কলকাতা (চিৎপুর স্টেশন) রুটে ৪৫৬ আসনবিশিষ্ট ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ সপ্তাহের প্রতি বৃহস্পতিবার যাত্রী নিয়ে যাতায়াত শুরু করে। ট্রেনটি খুলনা-কলকাতা সরাসরি চালু হলেও যশোরে  কোনো স্টপেজ ছিল না। এ জন্য যশোরের বিভিন্ন সংগঠন স্টপেজ এবং সিট বরাদ্দের দাবি জানাতে থাকে। বিষয়টি নিয়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ে আলোচনা শেষে উভয় দেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যশোরে স্টপেজ দিতে সম্মত হয়। চলতি বছরের ৭ মার্চ থেকে যশোরের মানুষের জন্য ২০০ টি আসন বরাদ্দ রেখে আপ এবং ডাউন ট্রেনে যাত্রী ওঠা-নামার জন্য যশোর রেলস্টেশনে তিন মিনিট যাত্রাবিরতি দিয়ে ট্রেনটি চলমান আছে।
রেলওয়ের সাথে সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রথম যশোর স্টেশনে যাত্রাবিরতির দিন ৩১ জন যাত্রী নিয়ে ‘বন্ধন’ কলকাতায় গেলেও পরবর্তীতে যাত্রীর সংখ্যা আর বাড়েনি। বরং দিন দিন কমছে। খুলনা থেকেও অল্প সংখ্যক যাত্রী নিয়ে ৪৫০ আসনের এ ট্রেনটি যাতায়াত করছে।
যাত্রীরা জানান, ট্রেনের অতিরিক্ত ভাড়ার কারণে কারও আগ্রহ থাকছে না। মাত্র ১৭৫ কিলোমিটার পথ ট্রেনে চড়ে কলকাতায় যাতায়াত করতে একজন যাত্রীকে শ্রেণিভেদে ভাড়া গুণতে হচ্ছে ১৫শ থেকে দুই হাজার টাকা। ট্রেনযাত্রায় দুর্ভোগ কম হলেও আর্থিক দিক বিবেচনা করে যাত্রী সাড়া মিলছে না ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ