মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

প্রথম সেমিফাইনালে আজ ভারত-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি

রফিকুল ইসলাম মিঞা : বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আজ প্রথম সেমিফাইনাল। প্রথম সেমিফাইনালে মাঠে নামছে ফেভারিট ভারত ও নিউজিল্যান্ড। ভারত দুই বারের চ্যাম্পিয়ন হলেও এখনও বিশ্বকাপ জয় করা হয়নি নিউজিল্যান্ডের। ভারত সর্বশেষ ২০১১ সালের চ্যাম্পিয়ন আর নিউজিল্যান্ড ২০১৫ সালের রানার্সআপ। আজ ফাইনালে উঠার টার্গেট নিয়েই মাঠে নামবে দল দু’টি। বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় শুরু হবে ম্যাচটি। শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে জয় পেয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে ভারত। অন্যদিকে শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হারের পরও পয়েন্ট টেবিলে চতুর্থ স্থানে থেকে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। প্রথম সেমিতে ভারত-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি হওয়ায় লড়াইটা মুলত ব্যাটিং বনাম বোলিং নির্ভরই হয়ে উঠছে। ভারত ব্যাটিং নির্ভর দল আর নিউজিল্যান্ড পেস আক্রমণ নির্ভর। তবে প্রথম পর্বের মতো প্রথম সেমিফাইনালেও রয়েছে বৃষ্টির আশঙ্কা। সম্ভাবনা রয়েছে বৃষ্টিতে ম্যাচ ভেসে যাওয়ারও। অবশ্য সেমিফাইনালে থাকছে রিজার্ভ ডে। তবে দুঃসংবাদ হলো, ভারত-নিউজিল্যান্ড সেমিফাইনালের রিজার্ভ ডেতেও রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস। যদি এমনটাই ঘটে অর্থাৎ দুদিনই বৃষ্টিতে খেলা মাঠে না গড়ায়, তাহলে কপাল পুড়বে কিউইদের। অন্যদিকে প্রথম পর্বে ভালো খেলার সুবাদে ফাইনালে পৌঁছে যাবে ভারত। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী সেমিফাইনাল ম্যাচ যদি বৃষ্টিতে ভেসে যায় সেক্ষেত্রে ফাইনালে  পৌঁছে যাবে প্রথম পর্বে এগিয়ে থাকা দল। ভারত গ্রুপ পর্বের ৯ ম্যাচে ৭ জয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে থেকে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারত। অন্যদিকে ৯ ম্যাচের পাঁচটিতে জিতে চতুর্থ স্থানে ছিল নিউজিল্যান্ড। পয়েন্ট  টেবিলে উপরে থাকায় বৃষ্টিতে ম্যাচ ভেসে গেলে ফাইনাল খেলবে ভারতই। দুই দলের মধ্যকার প্রথম পর্বের ম্যাচটিও ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। টুর্নামেন্টের  সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারতীয় শক্তিশালী  টপ অর্ডার আগামী দুটি দিন ভালভাবে শেষ করতে সতর্কতা অব্যাহত রাখবে। অপরদিকে ভারতীয়দের এ  সতর্কতার মধ্যেই  হানা দিতে  প্রস্তুত থাকবে জন্য নিউজিল্যান্ডের সাহসী পেস আক্রমণ বিভাগ। যেখানে রোহিত চেস্টা করবে লোকি ফার্গুসনের বাউন্সারকে হুক করতে, কে এল রাহুলকে মোকাবেলা করতে হবে ট্রেন্ট বোল্টকে, কোহলি চেস্টা করবে ম্যাট হেনরিকে পরাস্ত করতে। অথবা এটা হতে ভারতীয় স্পিনারদের মোকাবেলায় কেন উইলিয়ামসনের প্রায় সঠিক কৌশল কিংবা জসপ্রিত বুমরাহকে আয়ত্বে আনতে রস টেইলরের  চেস্টা। আবার শেষ দিকে লড়াইটা জমে উঠতে পারে মহেন্দ্র সিং ধোনি  এবং বাঁ-হাতি  অর্থোডক্স বোলার মিচেল স্যান্টনারের মধ্যে। তবে আইপিএলে  চেন্নাই  সুপার কিংসের সতীর্থ স্যান্টরারকে খুব কাছ থেকে দেখায় কিছুটা ভাল অবস্থানে থাকবেন ধোনি। ভারতের জন্য স্বস্তির বিষয় হচ্ছে প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড তাদের শেষ তিন ম্যাচেই পরাজিত হয়েছে। তবে প্রাথমকিভাবে ভাল করায়  রান রেটের ব্যাবধানে পাকি¯ত্মানের পরিবর্তে শেষ চার নিশ্চিত করেছে কিউইরা। তবে  রোহিত(৬৪৭), রাহুল(৩৬০) এবং বিরাট কোহলিসহ তিন জনের (৪৪২) ১,৩৪৭ রানের সঙ্গে লড়াইটা হতে পারে  ফার্গুসন(১৭), বোল্ট(১৫) এবং ম্যাট হেনরির (১০) সমন্বয়ে ৪২ উইকেট শিকারের লড়াইটাও জমে জমে উঠতে পারে। এ ছাড়া অলরাউন্ডার জিমি নিশাম (১১ উইকেট) এবং কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমসহ (৫ উইকেট) পেসারদের মোট ৫৮ উইকেট শিকারের বিষয়টি ভুলে গেলেও চলবেনা। খুব সাধারণভাবে গড়টাও ভারতের জন্য চিন্তার কারণ হতে পারে। কেননা রোহিত-রাহুল ভাল রান পাওয়া সত্বেও এমনকি টপ অর্ডারের ব্যর্থতার কারণে ইংল্যান্ডের কাছে হারতে হয়েছে ভারতকে। ভারতের মিডল অর্ডার এখনো জ্বলে উটতে পারেনি এবং বোল্টোর প্রথম স্পেল  ম্যানচেস্টারের মেঘলা আকাশে হতে পারে বেশ কার্যকর। হার্ডিক পান্ডিয়া ছাড়া মিডল অর্ডারের আর কোনো  ব্যাটসম্যানই সর্বোচ্চ আত্মবিশ্বাসে উদ্দিপ্ত হতে এখনো পারেনি। এমনকি প্রায় ৯০ স্ট্রাইক রেটে ধোনির ২৯০ রান সত্বেও এখনো  দু:শ্চিন্তার জায়গাটি রয়ে গেছে ভারতের। কিছু জটিল উইকেটেও তিনি রান করেছেন। তবে ব¯œ্যাক ক্যাপসদের নিশ্চিতভাবেই তিনি আরো ভাল করার চেস্টা করবেন। হেনরি এবং ফার্গুসনের  পেস হতে পারে ধোনির জন্য হতে পারে সহায়ক। তার ব্যাট হাসলে ধোনিকে মোকাবেলা করাটা কিউইদের জন্য কঠিন হবে। নিউজিল্যান্ডের দু:শ্চিন্তা হবে তাদের টপ অর্ডার।  শীর্ষ পাঁচ-এ  একমাত্র অধিনায়ক উইলিয়ামসন (৪৮১রান) ছাড়া আর কেউই এখন পর্যন্ত ভাল করতে পারেননি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বেশেষ দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজ খেলেননি বুমরাহ এবং ফর্মের বাইরে থাকা মার্টিন গাপটিল (১৬৬) এবং কলিন মুনরোর (১২৫) জন্য বিপজ্জনক হতে পারেন তিনি। উইলিয়ামসন এবং টেইলর(২৬১) কেবলমাত্র  সব মিলিয়ে  ২৫০এর বেশি রান করতে সÍগম হওয়া থেকেই নিউজিল্যান্ডের  টপ অর্ডারের  ব্যাটিং দৈন্যতা  ফুটে উঠেছে। ব্যাটিং বিবেচনায় কোন দিক থেকেই ভারতীয় দলের সম পর্যায়ে নেই নিউজিল্যান্ড। যেখানে তীব্র  সমালোচনার মধ্যে থাকা ধোনি প্রায় তিনশ রান করেছেন। বুমরাহ ও মোহাম্মদ সামির ফর্ম বিবেচনায় বোলিং বিবেচনায়ও এগিয়ে ধাকবে ভারত। তবে নিউজিল্যান্ড ব্যাটিং লাইনআপ বিবেচনা করে ভারতীয় দলের বোলিং লাইনআপে কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। আবার ভারতের ব্যাটিং লাইন আপ বিবেচনায় দুই রিস্ট স্পিনারের পরিবর্তে একজনকে খেলাতে পারে নিউজিল্যান্ড। কোহলির ভাষ্যমতে গত ম্যাচে যুজবেন্দ্রা চাহাললের জায়গায় পরিবর্তন আনতে তিনি বাধ্য হয়েছেন এবং এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। সে ক্ষেত্রে বিবেচনায় প্রথম আসবে রবীন্দ্র জাদেজার নাম। ভারত যদি ভুবনেশ্বর কুমারসহ ৩ পেসার নিয়ে খেলে এবং অফ স্পিনার হিসাবে কেদার যাদবকে সেরা একাদশে রাখে তবে মিডলঅর্ডারে আবারো দিনেশ কার্তিকের জায়গায় আসতে পারে  পরিবর্তন। এদিকে ২০০৮ সালের অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভারতের মুখোমুখি হয়েছিলো নিউজিল্যান্ড। ওই ম্যাচে ভারতীয় যুবাদের নেতৃত্বে ছিলেন বিরাট কোহলি ও কিউই যুবাদের নেতৃত্বে ছিলেন কেন উইলিয়াসন। ১১ বছর পর এবার বড়দের বিশ্বকাপের সেমিতে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এবারও দুই দলের নেতৃত্বে সেই কোহলি ও উইলিয়ামসনই। মজার ব্যাপার হলো সেবার ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির বলেই আউট হয়েছিলেন কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন।
ভারত দল: বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা, জসপ্রিত বুমরাহ, যুজবেন্দ্রা  চাহাল, শিখর ধাওয়ান এমএস ধোনি, রবীন্দ্র জাদেজা, কেদার যাদব, দিনেশ কার্তিক, কুলদীপ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ সামি, হার্ডিক পান্ডিয়া, কেএল রাহুল, বিজয় শংকর।
নিউজিল্যান্ড: মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, কেন  উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেইলর,ইস সোধি, জেমস নিশাম. কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, লোকি ফার্গুসন, ট্রেন্ট বোল্ট, টম লাথাম, হেনরি নিকোলস, টিম সাউদি, টম স্নান্ডেল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ