সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

বিজেপির গেরুয়াধারী কর্মীরা হিটলারের ব্রাউন সার্টধারীদের ভূমিকায় অবতীর্ণ -মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী

ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও নেজামে ইসলাম পার্টি সভাপতি মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী ভারতে সংখ্যালঘু মুসলমানদের সাথে বিজেপির সন্ত্রাসী আচরণকে তদানিন্তন জার্মানীতে নাৎসিবাদের সৃষ্ট পরিস্থিতির সাথে তুলনা করে বলেছেন, বিজেপির স্টর্ম ট্রপার হিসেবে পরিচিত গেরুয়াধারী উগ্র হিন্দুত্ববাদী ও উগ্র জাতীয়তাবাদী কর্মীরা হিটলারের ব্রাউন সার্টধারীদের মতো সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন চালিয়ে ভারতব্যাপী একটা ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। বিজেপি কর্মীদের সূচিত ও লালিত সন্ত্রাস মুসলিম নাগরিক জীবনকে যে বিপন্ন করে তুলেছ্, জয় শ্রীরাম স্লোাগান না দেওয়ায় কোলকাতায় চলন্ত ট্রেন থেকে এক ব্যক্তিকে ফেলা দেয়া,  গরুর গোশত  বিক্রির দায়ে আসামের বিশ্বনাথ জেলায় এক মুসলিমকে মারধর করে শুকরের মাংস খাওয়ানো ছাড়াও উত্তর প্রদেশ, গুজরাট, ঝাড়খন্ডে মুসলিম বিরোধী অপতৎপরতা তারই প্রকৃষ্ট প্রমাণ। তিনি বলেন, ভারতে হিন্দুত্ববাদী ও চরম উগ্রবাদী বিজেপি কর্মীদের সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর হত্যা-নির্যাতনের চিত্র মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিবেদনে সুস্পষ্টভাবে প্রতিফলিত হয়েছে। তিনি দেশে চুরি, ডাকাতি, গুম, খুন, নারী ধর্ষণ, ঘুষ, দুর্নীতিসহ অসামাজিক কার্যকলাপ ও অপরাধ প্রবণতা অস্বাভাবিকহারে বেড়ে যাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে ক্রমবর্ধমান অপরাধ দমনে ইসলামী আইন প্রয়োগের প্রয়োজনীয়তার ওপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেন। দাম বাড়ানোর বিপক্ষে জনমতের প্রবল্য থাকা সত্ত্বেও সর্বপর্যায়ে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করে প্রকারান্তরে সর্বক্ষেত্রে মূল্যবৃদ্ধির সুযোগ তৈরি করে দেয়া হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন ।
তিনি শনিবার বাদ আসর সিলেটের জিন্দাবাজারস্থ একটি হোটেলে (প্রীতিরাজ) বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সিলেট বিভাগীয় ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়ক মাওলানা আসলাম হোসেন রহমানীর সভাপতিত্বে ও মাওলানা মামুনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মহাসচিব মুফতি আবদুল কাইয়ূম ও যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা এএকেএম আশরাফুল হক। স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেনঃ সিলেট জেলা সভাপতি মাওলানা ক্বারী আবু ইউছুফ, মৌলভীবাজার সভাপতি মাওলানা সাইদুর রহমান নিজামী, হবিগঞ্জ জেলা আহ্বায়ক মাওলানা আবু ছালেহ, সুনামগঞ্জ জেলা সভাপতি মাওলানা গোলাম মোস্তফা। আরো বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট শিল্পপতি এমএ মতিন চৌধুরী, জাহিদউদ্দিন গোলাপগঞ্জ) মাওলানা আবদুস সামাদ(জকিগঞ্জ), আবদুল করিম (গোয়াইনঘাট), আর্মী মতিন ( জৈয়ন্তা) প্রমূখ।
তিনি বলেন, ভারতীয় মুসলমানদের করুন পরিস্থিতি নিয়ে শুধু উদ্বেগ প্রকাশ যথেষ্ট নয়। নিপীড়ন থেকে ভারতীয় মুসলিম জনগোষ্ঠীকে রক্ষার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এব্যাপারে এগিয়ে আসতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাতিসংঘ, ওআইসি, ন্যাম, আসিয়ান ও সার্কসহ সকল আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থা ও সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান । প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ