শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

খুলনায় মালিক সমিতি কর্তৃক বিআরটিসি’র বাস চলাচলে বাধা : যাত্রী দুর্ভোগ

খুলনা অফিস : খুলনা জেলা বাস মালিক সমিতির পরিচয়ে বিআরটিসি বাস চলাচলে বাধা সৃষ্টির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সাতক্ষীরার শ্যামনগর থেকে বিআরটিসি’র একটি যাত্রীবাহি বাস খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে আসলে বাসটি জিরো পয়েন্টে প্রায় আড়াই ঘন্টা আটকে রাখা হয়। এতে যাত্রীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েন। খবর পেয়ে পুলিশ বাসটি উদ্ধার করে। বিআরটিসি’র সূত্র জানান, বুধবার সাতক্ষীরার শ্যামনগর থেকে যাত্রী নিয়ে খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে আসা বিআরটিসি বাসে (ব-১১-১৯২৩) বটিয়াঘাটার কৈয়া বাজার থেকে ৪/৫ জন ব্যক্তি যাত্রী সেজে উঠে পড়ে। বাসটি সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে জিরো পয়েন্ট মোড়ে এলে তারা চালককে গাড়িটি থামাতে বলে। গাড়ি থামানোর সাথে সাথে বাস মালিক সমিতির লোক পরিচয় দিয়ে ৪/৫ ব্যক্তি চালকের কাছে রুট পারমিটের কাগজ দেখতে চায়। এ সময় বিষয়টি নিয়ে চালকের সঙ্গে তাদের বাকবিত-া হয়। এক পর্যায়ে পুলিশের উপস্থিতিতে তারা বাসটি ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। বিআরটিসি’র বাস চালক আব্দুল আলিম অভিযোগ করেন, জোর করে গাড়ি থামিয়ে কয়েকজন ব্যক্তি খুলনা জেলা বাস মালিক সমিতির পরিচয়ে আমার নিকট রুট পারমিটের কাগজ চায়, তখন তাদের সাথে আমাদের কথা কাটাকাটি হয়। তারা হুমকি দিয়ে বলে ‘এ রুটে গাড়ি চালাতে রুট মারপিট ও মালিক সমিতির অনুমতি লাগবে’। এক পর্যায় পুলিশের সহায়তায় আমাদের বাসটি ছেড়ে দেয়। বিআরটিসি’র খুলনা বাস ডিপো’র ম্যানেজার (অপারেশন) মো. জমশেদ আলী জানান, ১৯৬১ সালের বিআরটিসি অধ্যাদেশ আইনে বাংলাদেশে কোথাও বিআরটিসি গাড়ি চালাতে কোন রুট পারমিট লাগে না। মালিক সমিতির কোনো কাগজ দরকার হয় না। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, মালিক সমিতি কেন আমাদের গাড়ি চলাচলে বাধা প্রদান করবে, তারা কি কোনো অথরিটি? বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবগত করেছি, এরপরও কেউ যদি বিআরটিসি’র গাড়ি চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে, তাহলে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’। তিনি আরও অভিযোগ করেন, এর আগেও আমাদের গাড়ি কয়েকবার অবৈধভাবে আটকে রেখে চাঁদা দাবিসহ ড্রাইভার-হেলপারদের হুমকি ধামকি দেওয়া হয়।
খুলনা জেলা বাস মিনিবাস কোচ মালিক সমিতির সহ-সভাপতি মো. মিরাজ হোসেন বলেন, বিআরটিসির কোনো গাড়ি আমাদের কেউ আটকে রাখেনি। তবে শুধুমাত্র জানতে চাওয়া হয়েছে, ‘আপনারা কোন সিস্টেমে এই রুটে গাড়ি চালান’। তিনি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, বিআরটিসি লীজ দিয়ে ইচ্ছামত গাড়ি চালায়, এতে আমাদের অসুুবিধা হয়। এমনকি তারা গল্লামারি থেকে ইচ্ছামত যাত্রী বোঝাই করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ