মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২
Online Edition

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণকারীদের গ্রেফতার ও দ্রুত বিচার আইনের আওতায় আনতে হবে

খুলনা অফিস: স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণকারীদের গ্রেফতার ও দ্রুত বিচার আইনের আওতায় আনতে হবে। গণধর্ষণকারীরা যেন কোন মতে পালিয়ে না যেতে পারে তারজন্য পুলিশ প্রশাসনকে সজাগ থাকতে হবে। আসামীদের স্বীকারেক্তিমূলক জবানবন্দীতে তারা ধর্ষণের চিত্র ভিডিও ধারণ করে প্রতারণা ফাদে ফেলেছে। মামলার প্রধান আসামী শান্ত এখনও গ্রেফতার হয়নি। নেতৃবৃন্দ বলেন, ধর্ষণের বিচার বিলম্বিত বা উপেক্ষিত হওয়ার কারণে মানুষের মাঝে বিচার ব্যবস্থার প্রতি আস্থার সংকট সৃষ্টি হয়েছে। এজন্য দ্রুত বিচার আইনে ধর্ষনের বিচার নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে রাজনেতিক দলগুলোর জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করতে হবে। পরিবার, কমক্ষেত্র ও জনস্থানে জেন্ডার ভিত্তিক নির্যাতন ও যৌন হয়রানি বন্ধ করার জন্য বিদ্যমান আইন ও এ সংক্রান্ত হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে। জনউদ্যোগ খুলনার মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীতে জনউদ্যোগ খুলনার উদ্যোগে সাম্প্রতি খুলনায় স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষনকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জনউদ্যোগ খুলনার নেতা এডভোকেট শামীমা সুলতানা শীলুর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভা পরিচালনা করেন মহিলা পরিষদের অর্থ সম্পদক ইসরাত আরা হীরা ও সংগঠনের সদস্য সচিব মহেন্দ্র নাথ সেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর আশফাকুর রহমান কাকন, স্কুল কমিটির সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম বাবু, বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থার এডভোকেট মোমিনুল ইসলাম, সেফের নির্বাহী পরিচালক এডভোকেট উজ্জ্বল কুমার রায়, সিপিবি নেতা এস এম চন্দন, গ্লোবাল খুলনার শাহ মামুনর রহমান তুহিন, মহিলা পরিষদের অজান্তা দাস, খাদিজা কবির তুলি, এডভোকেট পপি ব্যানার্জি, সোনালীদিন প্রতিবন্ধী সংস্থার সাজেদা ইসলাম , প্রধান শিক্ষক শেখ মো. রফিকুল ইসলাম, শাহনাজ পারভীন, সন্দীপ ব্যানার্জী, সুচিত্র কুমার মন্ডল, মো. আব্দুল রাজ্জাক, আসমা বেগম, মাওলানা আ. কুদ্দুস, সুজিত সরকার, শাহানাজ পারভীন বকুল, জাহিদুল ইসলাম, বসির হোসেন, মমতাজ বেগম, মুন্নি আক্তার প্রমুখ। বক্তারা বলেন, পরিবার, কর্মক্ষেত্র ও জনস্থানে জেন্ডার ভিত্তিক নির্যাতন ও যৌন হয়রানি বন্ধ করার জন্য বিদ্যমান আইন ও এ সংক্রান্ত হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে। নারী ও শিশু আইন প্রয়োগের দুর্বলতা চিহ্নিতকরণ এবং তা যথাযথ বাস্তবায়ন করতে হবে। সভায় বক্তারা অবিলম্বে শান্তগংদের গ্রেফতার করার দাবি জানিয়ে বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে গ্রেফতার না হলে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ