মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২
Online Edition

নাটোর কারাগারের কয়েদি আব্দুল খালেক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন

নাটোর সংবাদদাতা : নাটোর কারাগারের মাদক মামলার কয়েদী আব্দুল খালেক চিকিৎসাধীন অবস্থায় নাটোরে সদর হাসপাতালে মারা গেছেন। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। আব্দুল খালেক গুরুদাসপুর উপজেলার নওপাড়া গ্রামের মৃত ছয়মুদ্দিনের ছেলে।

নাটোরের জেল সুপার আব্দুল বারেক জানায়, মাদক মামলার দুই বছরের সাজা প্রাপ্ত কয়েদেী আব্দুল খালেক গত ৩০ জুন আদালতের মাধ্যমে কারাগারে আসে। এরপর থেকেই সে অসুস্থ ছিল। পরে তাকে কারাগারের অভ্যান্তরিন চিকিৎসা দেওয়া হয়। চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে আব্দুল খালেক আরো বেশী অসুস্থ্য হয়ে পড়লে শুক্রবার সকালে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরে মরদেহটি ময়না দন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহটি নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

খালার বাড়ি যাওয়া হলো না শিশু উর্মিলার : নাটোরের বড়াইগ্রামে খালার বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার পথে মাটি বোঝাই ট্রলির নিচে চাপা পড়ে উর্মিলা খাতুন (০৫) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার জোনাইল-ধানাইদহ সড়কের নগর বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত উর্মিলা নগর ইউনিয়নের তালশো গ্রামের আলিম হোসেন ওরফে অলিমের মেয়ে।

নগর ইউপি চেয়ারম্যান নীলুফার ইয়াসমিন জানান, সকালে আলিম পারিবারিক কাজে নগর গ্রামে তার ভায়রার বাড়ি যাচ্ছিলেন। এ সময় উর্মিলা তার বাবার সঙ্গে যাবার জন্য কান্নাকাটি শুরু করে। পরে আলিম তাকে নিয়ে ভ্যানে করে নগর গ্রামে যাচ্ছিলেন। নগর বাজারে যাওয়ার পর ভ্যানে মেয়েকে রেখে তার বাবা দোকানে কেনাকাটা করছিলেন। এ সময় পেছন থেকে মাটি বোঝাই একটি ট্রলি ভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়। এতে উর্মিলা ছিটকে পড়ে ওই ট্রলির নিচে চাপা পড়ে গুরুতর জখম হয়। এ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বনপাড়ায় ক্লিনিকে নেয়ার পথে পথে সে মারা যায়। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ