রবিবার ১১ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

খুলনায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুল ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার

খুলনা অফিস : খুলনায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক স্কলছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ চার যুবককে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো-শাহাদাৎ, পরশ, আকাশ ও নুরুন্নবী। গণধর্ষণের সঙ্গে ৭ থেকে ৮জন জড়িত রয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। গত শনিবার বিকেলে ধর্ষিতা ছাত্রীর প্রেমিকের বন্ধুর বাসায় এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গণধর্ষণের অভিযোগে ৯জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরো ২-৩জনকে আসামি করে রোববার নগরীর সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা করা হয়েছে।
কেএমপির উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ এহসান শাহ জানান, বান্ধবীর মাধ্যমে নগরীর পল্লীমঙ্গল স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে পরিচয় হয় শান্ত নামের এক যুবকের। পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত শনিবার বিকেলে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে প্রেমিক শান্ত নগরীর শেরে বাংলা রোডস্থ জমজম মিষ্টির দোকানের কাছে বন্ধু নুরুন্নবীর বাসায় ওই স্কুল ছাত্রীকে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পর স্কুল ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। মেয়েটির কান্নাকাটিতে ঘটনাটি টের পেয়ে আশেপাশের লোকজন সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশকে খবর দেয়। সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ গিয়ে স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে পুলিশ নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শাহাদাৎ, পরশ, আকাশ ও নুরুন্নবীকে গ্রেফতার করে। শান্তসহ অন্যান্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা এহসান শাহ।
সোনাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মমতাজুল হক জানান, গণধর্ষণের অভিযোগে ৯জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরো ২-৩জনকে আসামি করে ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর বোন সোহেলী আক্তার বাদী হয়ে রোববার নগরীর সোনাডাঙ্গা থানায় মামলা করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ