সোমবার ২৫ মে ২০২০
Online Edition

বিচারহীনতার সংস্কৃতি রিফাত হত্যার মূল কারণ -মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যান

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেছেন, দেশে আইনের শাসন এখনো পুরোপুরি প্রতিষ্ঠিত হয়নি। এর ফলে প্রকাশ্য দিবালোকে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে এবং নুসরাতকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে। তিনি বলেন, বিচারের দীর্ঘসূত্রতা এবং বিচারহীনতার সংস্কৃতি রিফাত হত্যার মূল কারণ।
গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে আয়োজিত সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে যোগদান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রিয়াজুল হক এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, বিচারে সময় লাগছে অনেক বেশি। যে কারণে অপরাধীরা কোনো না কোনোভাবে পার পেয়ে যাচ্ছে। এটি অপরাধীদের অপরাধ কর্মকা- চালিয়ে যাওয়ার জন্য সাহস জোগাচ্ছে ।
রিফাত হত্যাকা-ের মূল হোতা নয়ন বন্ডকে গ্রেপ্তারে বিলম্বের ব্যাপারে তিনি বলেন, তাঁকে (নয়ন) গ্রেপ্তার করা কঠিন কিছু না। এটি খুবই সহজ যেহেতু বরগুনা একটি ছোট শহর এবং তাঁকে সবাই মোটামুটি চেনে। পুলিশ চাইলে ১৫ দিনের মধ্যে সবাইকে গ্রেপ্তার করতে পারে। এক মাসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়ে দিতে পারে, যেহেতু সব আলামত সামনেই আছে। আশা করি তাই করা হবে। তিনি আরও বলেন, এক মাসের মধ্যে চার্জশিট দিয়ে দেওয়া যায় এবং দুই-তিন মাসের মধ্যে বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ফেলা যায়। সেটি করতে পারলে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা যাবে।
রিফাত হত্যাকারীদের রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতার ব্যাপারে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, অপরাধী যে দলের, মতের বা যতই বিত্তবান হোক না কেন তাঁকে আইনের কাছে সোপর্দ করতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ