মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

মোদির নতুন মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়লেন যারা

৩১ মে, ওয়েবসাইট : মোদি সরকারের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সামনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের পর দ্বিতীয়বার পথ চলা শুরু মোদি সরকারের। ২১ রাজ্য থেকে ৫৮ জন মন্ত্রী পেল নতুন মন্ত্রিসভা। কিন্তু বেশ কয়েকজন হাই প্রোফাইল মন্ত্রী যারা গতবারের সরকারে ছিলেন, তারা এবারের সরকারে নেই।

এদের মধ্যে অন্যতম অরুণ জেটলি। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি গত ১৮ মাস ধরে গুরুতর অসুস্থ। তিনি প্রধানমন্ত্রী মোদিকে চিঠি লিখে জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, বর্তমানে, নতুন সরকারে কোনও দায়িত্বে তিনি থাকতে চান না। আইনজীবী থেকে রাজনীতিবিদ হয়ে ওঠা জেটলি বরাবরই বিজেপির প্রথম সারির নেতা। তিনি ছাড়াও বাদ পড়েছেন সুষমা স্বরাজ, সুরেশ প্রভু, জে পি নাড্ডা, উমা ভারতী, মানেকা গান্ধী, রাধা মোহন সিং, চৌধুরী বীরেন্দ্র সিং, মনোজ সিনহা, কেজে আলফনস, মহেশ শর্মা, জুয়েল ওরাম মতো মন্ত্রীরাও।

জগৎ প্রকাশ নাড্ডা গত সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। কিন্তু এবার মন্ত্রিসভায় সুযোগ পাননি। আশা করা হচ্ছে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় যোগদান করবেন তিনি।

সুষমা স্বরাজ আগের সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে তাকে বসে থাকতে দেখা গেছে দর্শকদের মধ্যে। গতবার বাণিজ্য ও শিল্প পোর্টফোলিও সাথে বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়ও সামলেছেন তিনি। শিবসেনা থেকে সুরেশ প্রভুকে মন্ত্রী করেছিলেন মোদি। এবার তিনিও বাদ পড়েছেন।

নরেন্দ্র মোদির নতুন সরকারে অস্থায়ী স্পিকারের দায়িত্বে থাকছেন মানেকা গান্ধী। গত মন্ত্রিসভাতেও তিনি নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন।

হিন্দুত্বের মুখ উমা ভারতীও নেই মন্ত্রিসভায়। প্রথম মোদি সরকারের শেষ দিকে মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে বাদ পড়েছিলেন তিনি। এবার লোকসভা ভোটেও প্রার্থী হননি উমা।

অন্যান্য প্রতিমন্ত্রী যারা আগের সরকারের মন্ত্রী ছিলেন কিন্তু এবারের মন্ত্রিসভায় স্থান পেলেন না তারা হলেন রাম ক্রিপাল যাদব (গ্রামীণ উন্নয়ন), হানসরাজ গঙ্গগ্রাম আহির (ঘরের বিষয়), রাধাকৃষ্ণ পি (শিপিং ও অর্থ), জয়ন্ত সিনহা (সিভিল বিমান পরিবহন), আনোয়ার কুমার হেগদে (দক্ষতা উন্নয়ন ও উদ্যোক্তা), এসএস আহলুয়ালিয়া (ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি) এবং বিজয় গোয়েল (সংসদ বিষয়ক)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ