মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

লাশ মর্গে প্রেরণ নবাবগঞ্জে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার নলেয়া গ্রামের আবু সাইদের মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (১৪) রবিবার সকাল ৮.৩০ মিনিটে নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সুমাইয়ার নানি হাফেজা বলেন, আমি সকালে সুমাইয়াকে রেখে চুল ছেড়া গার্মেন্সে গিয়েছিলাম, প্রতিদিন সে প্রাইভেট পড়তে যেত। আজকেও তার বান্ধবীরা প্রাইভেট পড়ার জন্য তাকে ডাকতে আসে। এসে দেখে গালায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের বর্গার সাথে ঝুলিয়ে আছে। এমতাবস্থায় তার বান্ধবীরা চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ও আমি এসে মাটিতে নামিয়ে দেখি সে মারা গেছে। মাহমুদপুর ইউপি চেয়ারম্যান আঃ রহিম বাদশা জানান, সুমাইয়া দরিদ্রতার মাঝেও নানির বাড়ি থেকে পড়াশুনা করতো। সে নলেয়া নিম্ন মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। তার মা ঢাকায় গার্মেন্সে চাকরি করেন। সুমাইয়া খুব ভালো ছাত্রী কি কারনে সে এমন ঘটনা ঘটালো কেই বলতে পারছেনা। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানা একটি অসাভাবিক মৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ মৃত্যুর প্রকৃত কারন উদঘাটন করতে এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেছে। থানা অফিসার ইনর্চাজ সুব্রতু কুমার সরকার জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলেই তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এসআই সুপ্রভাত বলেন, এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা পোস্ট মর্টেম করলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ