শনিবার ১০ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

টানা পাঁচ দিনের যানজটের অবসান

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) সংবাদদাতা: টানা পাঁচ দিন ধরে যানজটের পর ১২ মে রোববার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহা সড়কের দাউদকান্দির মেঘনা-গোমতি সেতুর দু’প্রান্তে কোনো যানজট দেখা যায়নি। টোল প্লাজা কর্তৃপক্ষ সহ বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে ফণি নামের ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে চট্টগ্রামের পোর্ট থেকে পণ্য উঠা নামা বন্ধসহ যানবাহন চলাচল কম থাকায় এবং পরে হঠাৎ করে গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় লাগাতার পাঁচ দিন যানজট বেড়ে চল্লিশ কিলোমিটারে উত্তীর্ণ হয়। রোববার হঠাৎ করে যানজট কমে গিয়ে শূণ্যের কোটায় পৌঁছে গেলে বিষয়টি জানতে সরজমিনে দাউদকান্দি মেঘনা-গোমতি সেতু টোল আদায় ও মেন্টেন্সে ইনচার্জ মো. ইউনুস মিয়ার সাথে এ বিষয়ে জানতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি তবে নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক তাঁর জনৈক এক কর্মকর্তা জানান, সেতুর পশ্চিম প্রান্তে এ্যাপ্রোচ সড়কের কাজ প্রায় সম্পন্ন হওয়ায় ও গাড়ির চাপ কমে আসায় যানজট নাই বল্লেই চলে। তবে রাতের মধ্যে আবার গাড়ির চাপ বেড়ে গেলে আবারো জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হতে পারে। সূত্র জানায়, ২৬ মে দাউদকান্দি ও মেঘনায় নব নির্মিত দু’টি সেতু যান বাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে। যথা সম্ভব সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারেন। টানা পাঁচ দিনের যানজট নিরসনে দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন, মডেল থানার ওসি রফিকুল ইসলাম, হাইওয়ে থানার ওসি আবুল কাূলাম আজাদ, দাউদকান্দি পৌর সভার প্যানেল মেয়র ও কুমিল্লা উত্তর জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. রকিব উদ্দিন জানান, লাগাতার যানজট চলাকালে সকলে মিলে যাত্রী ও পণ্যবাহী গাড়ির নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে। এখানে অনেক স্বেচ্ছাসেবক দিনরাত কাজ করেছে। যানজট হলে সংশ্লিষ্টদেরও অনেক কষ্ট পোহাতে হয়। সেতু দু’টি উদ্বোধনপূর্ব সড়ক মেরামত, বিভিন্ন ডিভাইডারে রং কাজ, চার লেনের মাঝে বৃক্ষরাজি সুন্দর করে সাজানো হচ্ছে। সড়কের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতে ও আগাছা পরিষ্কারে প্রচুর সংখ্যক শ্রমিক কাজ করে যাচ্ছেন। দাউদকান্দি মেঘনা-গোমতি ও মেঘনা সেতু উদ্বোধন হলে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ থেকে ঈদুল ফিতরের আগে পরে যাত্রীরা নির্বিঘ্নে নিজ-নিজ গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ