শুক্রবার ২৭ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

স্বাধীন ভারতের প্রথম চরমপন্থি নাথুরাম গডসে ---কমল হাসান

১৩ মে, এনডিটিভি : স্বাধীন ভারতের প্রথম চরমপন্থি একজন হিন্দু ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রখ্যাত অভিনেতা ও রাজনীতিক কমল হাসান।

গত রোববার রাতে তামিল নাডু রাজ্যের কারুর জেলার আরাভাকুরিচি শহরে এক নির্বাচনী প্রচারণা সভায় তিনি একথা বলেন।

কমল হাসানের রাজনৈতিক দল এবার প্রথমবারের মতো ভারতের জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে দেওয়া বক্তব্যে তিনি মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসের কথা উল্লেখ করেন।  

তিনি বলেন, “এটি মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা বলে আমি একথা বলছি না, বলছি গান্ধীর মূর্তির সামনে দাঁড়িয়ে। স্বাধীন ভারতের প্রথম চরমপন্থি একজন হিন্দু ছিলেন, তার নাম নাথুরাম গডসে। সেখান থেকেই এটির শুরু।” 

তামিল নাডু বিধানসভার যে চারটি আসনে ১৯ মে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আরাভাকুরিচি তার মধ্যে একটি। কমল হাসানের রাজনৈতিক দল মক্কাল নীধি মাইয়াম (এমএনএম) এই আসনে একজন প্রার্থী দিয়েছে। এই প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালচ্ছিলেন তিনি।

একটি গাড়ির মধ্যে দাঁড়িয়ে হাসান জানান, তিনি ওই জায়গায় গিয়েছেন ওই ‘গুপ্তহত্যার উত্তর খুঁজতে’। 

 “ভালো ভারতীয়রা সমতা চায় এবং জাতীয় পতাকার তিনটি রঙ অটুট রাখতে চায়। আমি একজন ভালো ভারতীয়, গর্বিতভাবেই তা প্রচার করবো,” বলেন তিনি।    

২০১৭ সালের নভেম্বরে তামিল চলচ্চিত্রের এ মহাতারকা ‘সন্ত্রাসবাদ ডানপন্থি গোষ্ঠীগুলোকে সংক্রমিত করেছে’ বলে মন্তব্য করেছিলেন, এতে বিজেপির সঙ্গে তাদের বিরোধ শুরু হয়। 

ওই সময় হাসান বলেছিলেন, “অতীতে হিন্দু, ডানপন্থি গোষ্ঠীগুলো সহিংসতাকে প্রশয় দিতো না, বিরোধীদের সঙ্গে আলোচনায় বসতো তারা; কিন্তু তারা এখন সহিংসতার আশ্রয় নিচ্ছে।”

এর কয়েক মাস পর এক মন্তব্যে তিনি জানান, তিনি হিন্দুবিরোধী বা অন্য কোনো ধর্মের বিরুদ্ধে না।

চলতি বছরের প্রথমদিকে কমল হাসান কেরালার সবরিমালা মন্দির ইস্যুতে দেখা দেওয়া ব্যাপক প্রতিবাদ বিক্ষোভের জন্য ডানপন্থিদের দায়ী করেছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ