শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ভাইপোর লাঠির আঘাতে চাচা খুন

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা : শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী পশ্চিম পরানপুরে জমিজায়গা বিরোধের জের ধরে ভাইপোর লাঠির আঘাতে চাচা ফজলু গাজী (৪৫) খুন হয়েছে। সে উপজেলার পরানপুর গ্রামের মৃত আতিয়ার গাজীর পুত্র। ঘটনা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা নিয়ে ফজলুর আপন বড় ভাই মজিদ গাজীর সাথে বিরোধ ছিল। এবিষয় স্থানীয় ইউপি সদস্যরা দু’ভাইয়ের জমিজায়গা নিয়ে বিরোধ নিরসনের চেষ্টায় ব্যার্থ হয়। অবশেষে ২৯ এপ্রিল  বিকাল ৪টায় আবারও দু’পক্ষের বিরোধ নিরসনের জন্য স্থানীয় ভাবে শালিসে বসে কৈখালী ৬ নং ইউপি সদস্য পবিত্র মন্ডল, ৮ নং ইউপি সদস্য অসিম মন্ডল, ৯ নং ইউপি সদস্য আলহাজ্ব আজগার আলী, সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুল হক ও ওয়ার্ডের আ.লীগের সভাপতি কেরামত আলীসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। শালিসের শেষে সকলের উপস্থিতিতে ফজলুর উপর মজিদ তার স্ত্রী ছফিরন ও ছেলে জোবায়ের গাজী (২৫) হামলা চালায়। এসময় জোবেয়ার মেহগনি গাছের লাঠি দিয়ে তার চাচা ফজলুর মাথা ও ঘাড়ে আঘাত করে।ঘটনাস্থলে ফজলু অজ্ঞান হয়ে গেলে পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে ভর্তি না নিলে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে খুলনা আড়াইশ বেড সরকারি হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে জানাযায়। এবিষয় ইউপি সদস্য পবিত্র মন্ডল বলেন, জমিজায়গা নিয়ে বিরোধ নিরসনের জন্য তিনি সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতেই ফজলুর উপর হামলা চালায় তার ভাইপো জোবায়ের। তার লাঠির আঘাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যু হয় ফজলুর। এবিষয় শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ হাবিল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, থানায় একটি মামলা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ