শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

স্বাধীনতাকামী সন্দেহে কাশ্মীরে মুসলিম ডক্টরসহ ছয়জন আটক

৩০ এপ্রিল, ইন্টারনেট : ভারত অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী হামলার পর পুরো এলাকাজুড়েই দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান বেড়ে গেছে অনেক গুণ। এতে যেমন স্বাধীনতাকামীরা তাদের হাতে নিহত হচ্ছে, তেমনি তাদের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পরিমাণও বেড়ে গেছে।
এবার এসব হামলার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করা হিলাল আহমেদ মান্টোসহ ছয়জনকে আটক করেছে স্থানীয় গোয়েন্দা বিভাগ। অন্যরা হলো ওয়াসিম, উমার শাফি, আকিব শাহ, ওয়াইস আমিন এবং শাহিদ ওয়ানি।
স্থানীয় পুলিশ জানায়, গত মাসের ৩০ তারিখে জম্মু-কাশ্মীরের বানিহাল এলাকায় এক গাড়ি বোমা বিস্ফোরণ হয়। জম্মু ও কাশ্মিরের মাঝামাঝি এলাকায় ঘটে যাওয়া ওই বিস্ফোরণের লক্ষ্য ছিল আধা সেনা জওয়ানেরা। পুলিশ দাবি করছে, এতে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও বিস্ফোরণের তীব্রতা ছিল অনেক বেশি।
এর আগে ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় আত্মঘাতী এক বোমা হামলায় আধা-সামরিক বাহিনী সিআরপিএফের ৪৪ সদস্য নিহত হয়। এর জের ধরে পাকিস্তান ভারতের মধ্যে পাল্টাপাল্টি বিমান হামলার ঘটনাও ঘটে।
এর মধ্যেই বানিহাল এলাকায় ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এর প্রেক্ষিতে সে সময়ই দুজনকে গ্রেফতার গ্রেফতার করে পুলিশ। এর প্রায় এক মাসের মধ্যে ওই হামলার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের পুলিশের আইজি এমকে সিনহা। পুলিশ দাবি করছে, গ্রেফতারকৃতরা সকলেই জঈশ-ই মোহাম্মদ এবং হিজবুল দলের সদস্য।
পুলিশ আরো জানায়, মান্টো গত বছর ভাতিন্দা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় থেকেই সে স্বাধীনতাকামী আন্দোলনে উদ্বুদ্ধ হন তিনি।
তবে বানিহালের ঘটনার সঙ্গে পুলওয়ামার ঘটনার কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছে জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ। বানিহালে একটি স্যান্ট্রো গাড়িতে রাখা ছিল বিস্ফোরক। বিস্ফোরণে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে যায় গাড়িটি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ