সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চাকরি স্থায়ীকরণের দাবি ২ লাখ ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মীর

স্টাফ রিপোর্টার: ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচিতে (সব পর্ব) ২ লাখের বেশি কর্মরত কর্মীদের স্থায়ী কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা ও যুব কর্মীদের মেয়াদ বাড়ানোসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল সার্ভিস একতা কল্যাণ পরিষদ। 

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় তারা এই দাবি জানায়। মতবিনিময় সভায় সংগঠনের সভাপতি মোঃ মোস্তফা আল ইহযাযের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন,রনজিৎ কুমার সাহা, শ্রমিকনেতা মোসাদেক হোসেন স্বপন, শিল্পরক্ষা আন্দোলনের সচিব হারুন অর রশিদ, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক নুরুল আফসার, কোষাধ্যক্ষ হ্লক্রা মারমা, ঢাকা মহানগরের সভাপতি শহীদুর রহমান বাবুসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

সংগঠনের সভাপতি মোঃ মোস্তফা আল ইহযায তাদের ৭ দফা দাবির প্রসঙ্গে বলেন, চাকরির মেয়াদ ও বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করা, চিকিৎসা ভাতা প্রদান, প্রভিডেন্ট ফান্ড ও গ্রাচুইটি বিল চালু, যোগ্যতা অনুযায়ী তৃতীয় শ্রেণির মর্যাদা প্রদান। একই সঙ্গে যেসব কর্মীর মেয়াদ শেষ হচ্ছে তাদের পুনর্বহালসহ চাকরি স্থায়ীকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় যুব নারী-পুরুষরা তিন মাসের মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে দুই বছর মেয়াদী অস্থায়ী ভিত্তিতে মাসিক ৬ হাজার টাকা বেতনে কর্মরত আছেন। তারা সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে দৈনিক ৮ ঘণ্টা কাজ করছে। যার মেয়াদ শেষ হলে বেকার হতে হবে। এ জন্য তারা সরকারের নিকট ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি স্থায়ীকরণ, মেয়াদ ও ভাতা বাড়ানোর দাবি জানান। 

মতবিনিময় সভায় সভাপতি তাঁর লিখিত বক্তব্যে নিম্নোক্ত দাবিনামা পেশ করেন, ১। ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচিতে মেয়াদ উত্তীর্ণ কর্মীদের ৩ মাসের প্রশিক্ষণ ও ২ বছরের কর্ম অভিজ্ঞতার যথাযথ মূল্যায়ন করে স্ব-স্ব পদে পুনরায় নিয়োগ প্রদান করতে হবে। ২. আগামী এক মাসের মধ্যে মেয়াদ উত্তীর্ণ কর্মীদের পুনরায় নিয়োগ প্রদান করতে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে নিয়োগ কমিটি গঠন করে দৃশ্যমান কর্ম তৎপরতা শুরু করতে হবে। ৩. যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক মেয়াদ উর্ত্তীণ কর্মীদের জন্য কর্মসংস্থান ও আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য ১৪ সদস্য বিশিষ্ট যে কমিটি গঠন করা হয়েছে, সে কমিটিতে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মীদের প্রতিনিধি রাখতে হবে। ৪.চলমান কর্মসূচির কর্মীদের মেয়াদ ও কর্ম-ভাতা বৃদ্ধি করতে হবে। ৫.ন্যাশনাল সার্ভিসের অভিজ্ঞ কর্মীদের পুনঃনিয়োগ না দেওয়া পর্যন্ত ন্যাশনাল সার্ভিস ব্যতীত সরকারের অন্যান্য বিভাগে সকল নিয়োগ বন্ধ রাখতে হবে। ৬. অনতিবিলম্বে দেশের যে সকল উপজেলা এখন পর্যন্ত ন্যাশনাল সার্ভিসের আওতায় আসেনি, সে সকল উপজেলাকে ন্যাশনাল সার্ভিসের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। ৭. বেকারত্য দূরীকরণের লক্ষ্যে বয়সসীমা ২৪-৩৫ এর পরিবর্তে ১৮-৩৫ করে উপজেলাব্যাপী নতুন ভাবে সম্প্রসারণ করতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ