বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত

রয়টার্স, এনডিটিভি: ভারতের লোকসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েচে। গতকাল বৃহস্পতিবার ১১টি রাজ্য ও একটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের ৯৫টি পার্লামেন্ট আসনে ভোট গ্রহণ করা হয় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এ দিন তামিল নাডুর ৩৮টি লোকসভা আসনের পাশাপাশি রাজ্য বিধানসভার ১৮টি আসনের নির্বাচনের ভোটও গ্রহণ করা হয়। উড়িষ্যায় লোকসভার পাঁচটি আসনে ও বিধানসভার ৩৫টি আসনে ভোট হয়। 

এর পাশাপাশি কর্নাটকে লোকসভার ১৪টি আসনে, মহারাষ্ট্রের ১০টি আসনে, উত্তর প্রদেশের আটটি, পাঁচটি করে আসাম ও বিহারে, তিনটি করে ছত্তিশগড় ও পশ্চিম বঙ্গে, জম্মু ও কাশ্মীরের দু’টি ও  মনিপুর ও পুদুচেরির একটি করে লোকসভা আসনে ভোট হয়। 

এ দফার নির্বাচনে ভারতের চার জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেব গৌড়ার নির্বাচনী ভাগ্য নির্ধারিত হবে।

তারকা প্রার্থী হেমা মালিনির নির্বাচনী ভাগ্যও এদিন নির্ধারিত হচ্ছে। উত্তর প্রদেশের মাথুরা আসন থেকে বিজেপির টিকেটে প্রার্থী হয়েছেন তিনি। এ দফায় ১৫ কোটি ৫০ লাখেরও বেশি ভোটারের ভোটাধিকার প্রয়োগ করার কথা।

ভারতীয় লোকসভার মোট আসন ৫৪৫টি। এবারের নির্বাচনে দেশজুড়ে মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ৯০ কোটি।

১১ এপ্রিল প্রথম দফার ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফা ভোট গ্রহণ করা হবে। এভাবে ১৯ মে পর্যন্ত আরও চার দফা ভোট গ্রহণের মাধ্যমে বিশ্বের বৃহত্তম এই নির্বাচনী যজ্ঞ শেষ হবে। 

২৩ মে সব ভোট গণনা শেষে ওই দিনই নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করার কথা রয়েছে।

নির্বাচন উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলেও বুধবার উড়িষ্যায় মাওবাদীদের হামলায় এক নির্বাচনী কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। রাজ্যটির কান্ধামাল জেলায় বিধানসভার ফুলবানি আসনের একটি বুথের উদ্দেশ্যে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের একটি দলকে নেতৃত্ব দিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ওই নারী কর্মকর্তাকে গুলী করে হত্যা করে মাওবাদীরা।

মোদির কপ্টার তল্লাশি করায় নির্বাচনী কর্মকর্তা বরখাস্ত

এনডিটিভি : সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ভারতের নির্বাচনী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিনকে উড়িষ্যায় জেনারেল পর্যবেক্ষক হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিলো। তিনি গত মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা নিশ্চিত না করেই সাম্বালপুরে মোদির হেলিকপ্টার তল্লাশি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

কমিশন গত বুধবার জানায়, ১৯৯৬ সালে নিয়োগ পাওয়া আইএস অফিসার মহসিন প্রধানমন্ত্রী মোদীর নিরাপত্তায় নিয়জিত এসপিজিকে উদ্বিগ্ন করেছে। তিনি যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে এসপিজি সদস্যদের ছাড়াই হেলিকপ্টারটি তল্লাশি করেছেন।

নির্বাচন কমিশনের একজন কর্মকর্তা জানান, তল্লাশির কারণে প্রধানমন্ত্রীর হেলিকপ্টারটি প্রায় ১৫ মিনিট আটকে রাখা হয়। এমনকি একই দিনে আরো দু’টি হেলিকপ্টার তল্লাশি করে নির্বাচন কমিশনের ফ্লাইং স্কোয়াড। উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নাভীন পটনায়েক ও কেন্দ্রীয় পেট্রলমন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের হেলিকপ্টারও তল্লাশির শিকার হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ