শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

নেপালে তীব্র ঝড়বৃষ্টিতে ২৭ জনের মৃত্যু ॥ আহত চার শতাধিক

১ এপ্রিল, টাইম অব ইন্ডিয়া : নেপালের দক্ষিণাঞ্চলের বেশ কয়েকটি এলাকায় তীব্র ঝড়বৃষ্টিতে অন্তত ২৫ জনের মৃত্যু ও চার শতাধিক লোক আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

রোববার সন্ধ্যায় দেশটির বারা ও পারসা জেলার ওপর দিয়ে তীব্র ঝড়বৃষ্টি বয়ে যায় বলে দ্য হিমালয়ান টাইমসের প্রতিবেদনের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা টাইমস অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) ।

নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে. পি. শর্মা অলি এক টুইটে ২৫ জনের মৃত্যু ও প্রায় ৪০০ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

 “তাৎক্ষণিক উদ্ধার ও ত্রাণ সরবরাহের জন্য হেলিকপ্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে,” টুইটে বলেছেন তিনি। নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।

বারা জেলার শীর্ষ কর্মকর্তা রাজেশ পাউদেল জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্ত অনেক এলাকায় উদ্ধারকারীরা এখনও পৌঁছতে পারেননি, তাই মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা আছে।

রাজধানী কাঠমান্ডু থেকে প্রায় ৬২ কিলোমিটার দক্ষিণে বারার অবস্থান। সীমান্তবর্তী জেলাটির অপরপাশে ভারতের বিহার রাজ্য। জেলাটির অনেকগুলো গ্রাম ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত বিবরণ পাওয়ার পর মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ভাষ্য পার্শ্ববর্তী পার্সা জেলা পুলিশ দপ্তরের।

পুলিশ কর্মকর্তা সানু রাম ভট্টরাই বলেছেন, ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামগুলোর উদ্দেশ্যে উদ্ধারকারী দল পাঠানো হয়েছে, কিন্তু রাতে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে পৌঁছানো কঠিন ছিল।

টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর খবরে বলা হয়, তীব্র ঝড়ের সঙ্গে ভারি বৃষ্টিপাতে গাছ, বৈদ্যুতিক ও টেলিফোনের খুঁটি উপড়ে পড়ে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে।

নেপালে বসন্তকালে বজ্রঝড় নিয়মিত বিষয় হলেও এ রকম প্রচ- ঝড়বৃষ্টি ও তাতে এত লোকের মৃত্যু সাধারণত হয় না।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ