বৃহস্পতিবার ২৬ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

১১ মার্চে কোনো নির্বাচন হয়নি

ডাকসু নির্বাচন-প্রত্যাখান ও পুনর্নির্বাচনের দাবিতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল গতকাল মঙ্গলবার ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে ও পুনঃতফসিলের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যন্টিন থেকে মিছিলটি বের হয়ে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে গিয়ে শেষ হয়। ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আল মেহেদী তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবুল বাসার সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকী, ছাত্রদলের প্যানেল থেকে ডাকসু নির্বাচনের সহসভাপতি (ভিপি) প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক (জিএস) প্রার্থী খন্দকার আনিছুর রহমান (অনিক), সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) প্রার্থী খোরশেদ আলম সোহেলসহ কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত রয়েছেন। বক্তব্যে তারা ডাকসু নির্বাচন-প্রক্রিয়াকে ‘বিতর্কিত’ ও ‘সাজানো নাটক’ আখ্যা দিয়ে পুননির্বাচনের দাবি করেন।
ডাকসু নির্বাচনের ফলাফলের কড়া সমালোচনা করে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান বলেছেন, কোনো হলে ডাকসুর ভিপি-জিএস কত ভোট পেল, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তা প্রকাশ করতে পারেনি। কারণ, এই ফলাফল ভিন্ন জায়গা তৈরি করা হয়েছে আর ভিসি ঘোষণা করেছেন সিনেট ভবনে। এই ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আর সরকারের ঊর্ধ্বতন মহলের লিখিত প্রেসক্রিপশনের ফলাফল। এই ফলাফলের মধ্যে ইট-পাথরের ডাকসু ভবনে শুকনো কাঠ আর পেরেকের তৈরি চেয়ারে বসে হয়তো ডাকসুকে দখল করা যাবে, কিন্তু শিক্ষার্থীদের মন জয় করা যাবে না।
এ সময় মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ১১ মার্চের নির্বাচন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে কলঙ্কিত করেছে। এই নির্বাচন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব নির্বাচনকে কলঙ্কিত করেছে। এই কলঙ্কিত নির্বাচনের সঙ্গে ভিসি জড়িত। ১১ মার্চে কোনো নির্বাচন হয়নি, ছাত্রলীগের ভোট জালিয়াতি হয়েছে। তিনি আরো বলেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। যারা এই কারচুপির নির্বাচনের সঙ্গে জড়িত, তাদের পদত্যাগের দাবি জানাচ্ছি; শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি। এই নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের দাবি করছি।
বিক্ষোভ থেকে ‘দে দে আগুন দে, দালাল ভিসির গদিতে’, ‘এসো ভাই এসো বোন, গড়ে তুলি আন্দোলন’, ‘আমরা শক্তি আমরা বল, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল’, ‘প্রহসনের নির্বাচন, বাতিল কর করতে হবে’, ‘দিবারাত্রির নির্বাচন, ছাত্রদল মানে না’সহ নানান স্লোগান দেওয়া হয়।
একই দাবিতে আজ বুধবার দুপুর ১২টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে মানববন্ধন করবে ছাত্রদল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ