সোমবার ০১ জুন ২০২০
Online Edition

মেয়র নির্বাচনের সময় দায়ের হওয়া গায়েবি মামলায় ৩৩ বিএনপি নেতাকর্মী কারাগারে

খুলনা অফিস : বিগত মেয়র নির্বাচনে সকল নিয়মনীতি ভঙ্গ করে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে মাঠপর্যায়ে নেতাকর্মীদের নির্বাচনী ময়দান থেকে সরিয়ে ভোট ডাকাতি করতে সে সময় খালিশপুর থানা পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের ১৪ জনের নামে মেয়র নির্বাচন বানচালের হাস্যকর মিথ্যা মামলা দায়ের করে। সে সময় নির্বাচন কমিশন এই মামলার কার্যক্রম স্থগিত রাখতে পুলিশকে নির্দেশ দেয়। নির্বাচনী বিধিমালায় নির্দেশনা ছিল নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর কোন মামলা দায়ের করা যাবে না।
দীর্ঘ ১০ মাস পর খালিশপুর থানা পুলিশ ৫(৫)১৮ মিথ্যা মামলায় ৬১ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট প্রদান করায় হাইকোর্ট ও মহানগর দায়রা জজ আদালত কর্তৃক জামিনপ্রাপ্ত ৩৩ জনের জামিন বাতিল করে মেট্রোপলিট কোর্ট আজ তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। ভোট ডাকাতির মেয়র নির্বাচনকালে সকল নিয়মনীতি ভঙ্গ করে মিথ্যা মামলা দায়ের, এই মামলায় চার্জশিট প্রদান ও জামিনপ্রাপ্তদের কোন কারন ছাড়াই জামিন বাতিল করে লিটন খান, আব্দুর রহমান ডিনো, আব্দুল আজিজ সুমনসহ বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও শ্রমিক দলের ৩৩ নেতাকর্মীকে জেল হাজতে প্রেরনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি।
বিগত দু’টি নির্বাচনে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে ভোট ডাকাতি করে জনগণের ভোটাধিকার হরণকারী সরকারের বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, নির্লজ্জ সরকার, সরকারি দল ও প্রশাসনকে ইনশাআল্লাহ জবাবদিহি করতে হবে। জনগণের বিজয় একদিন হবেই। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ দুঃশাসনের যাতাকলেপৃষ্ট নেতাকর্মীদের অসীম ধৈর্য ধারণ করে জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলার আহ্বান জানান। সেই সাথে ফ্যাসিবাদী শাসকের কারাগারে বন্দী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সহ সকল বন্দির মুক্তি দাবি করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ