মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

তালতলীতে ইয়াবা দিয়ে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেল আ’লীগ কর্মী মাসুম

আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা : বরগুনার তালতলীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মঙ্গলবার অটো ড্রাইভার ফারুককে ইয়াবা ঢুকিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেল আওয়ামী লীগ কর্মী মাছুম মোল্লা।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলাধীন গবিন্দপুর গ্রামের কাওসার উদ্দিনের ছেলে ফারুক (২৪) দীর্ঘদির ধরে তালতলী উপজেলার জয়ালভাঙ্গা এলাকায় নির্মাণাধীন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে লেবার শ্রমিক পদে (অটো ড্রাইভার) এর কাজ করে। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত কয়েকদিন আগে ওই লেবার শ্রমিক ফারুকের সাথে শহরস্থ মালিপাড়া এলাকার কাওসার মোল্লার পুত্র আওয়ামী লীগ কর্মী মাছুমবিল্লাহর কথার কাটাকাটি হয়। ঘটনার দিন ফারুক নিত্যদিনের মত নির্মাণাধীন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের লোকজন নিয়ে সেখানে যায়। পরে ফারুক তার অটোবাইকটি রেখে ওই লোকজনের সাথে কাজে ব্যস্ত থাকে। দুপুরে তাদের নিয়ে আবার ওই গাড়ীতে ফেরার সময় আওয়ামী লীগ কর্মী মাছুমবিল্লাহ ওই অটোবাইকের সীটের নীচে ইয়াবা আছে বলে পুলিশকে অবহিত করে। পুলিশ অটোবাইকটি তল্লাশি দিয়ে সীটের নীচ থেকে ২পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে। পরবর্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে অটোবাইক চালক ফারুক নির্দোশ প্রমাণিত হলে আওয়ামী লীগ কর্মী মাছুমবিল্লাহকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।
তালতলী থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় জানান, অটোবাইক থেকে ইয়াবা উদ্ধারের পর তদন্তে চালক ফারুক নির্দোশ প্রমাণিত হয় এবং উদ্ধারকৃত ইয়াবার সাথে সংশ্লিষ্টতা থাকার প্রমাণ পাওয়ায় মাছুম বিল্লাহকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।
বিধবার ঘর ভেঙ্গে দিলেন প্রতিপক্ষ
বরগুনার আমতলী উপজেলার কুকুয়া ইউপির  পূর্বচুনাখালী গ্রামের এক অসহায় বৃদ্ধ বিধবা  মহিলার  শেষ সম্বল  বাশের তৈরি ঘর ভেঙ্গে ফেলেছে   প্রতিপক্ষ।
জানা গেছে,  পুর্বচুনাখালী গ্রামের মৃত কালু মিয়ার বিধবা স্ত্রী আম্বিয়া বেগম(৭০) স্বামীর বসত বাড়িতে অসহায় দু মেয়ে সন্তান নিয়ে বসবাস করেন। এলাকাবাসী জানান, কালু মিয়ার স্ত্রী আম্বিয়া কালুমিয়ার পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত  জমিতে বাশ দিয়ে ঘর  বানিয়ে বসবাস করেন । গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে  ঝি এর কাজ করে দু সন্তান নিয়ে কোন বেলা  খাইতে পারে কোনো বেলা খাইতে পারেনা  এ অবস্থায় চলছে আম্বিয়ার সংসার । মঙ্গলবার সকাল ১০ টার সময় আম্বিয়া বেগমের ঘরের মধ্যে জমি পাবে বলে একই  গ্রামের সুদখোর  নামে পরিচিত দেলোয়ার (৪০) নুরজামাল (৩৫) আবুল বাশার (২৫) শামীম (১৮) সহ ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা বাশ দিয়ে তোলা ঘরটি সম্পূর্ণ ভেঙ্গে ফেলে দেয় ।
অসহায় আম্বিয়া বেগম জানান, স্থানীয় সালিশদাররা  জমি মেপে আইলসীমানা  নির্ধারন করে দেন । কিন্তু দেরোয়ার গংরা সেই আইল সিমানা ফালাইয়া দিয়ে আমার ঘরটি ভেঙ্গে ফেলে দিয়েছে । আমার  এখন খোলা আকাশের নিচে  থাকা ছাড়া কোনো উপায় নাই । এ ব্যাপারে দেলোয়ারের কাছে জানার জন্য একাধিক বার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।
 এ ঘটনায় আম্বিয়া বেগম আমতলী থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন । আমতলী থানার এস আই ফারুক জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ