শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
Online Edition

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেন না -কেএম শফিউল্লাহ

 

স্টাফ রিপোর্টার : মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের তেমন সম্মান দেন না বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধের ৩ নম্বর সেক্টর কমান্ডার ও সাবেক সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল কে এম শফিউল্লাহ।

গতকাল শনিবার প্রেসক্লাবে একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা আয়োজিত মুক্তিযোদ্ধাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি ও তাদের মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠা শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন। মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সাবেক সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল হারুন-অর-রশিদ, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আলী শিকদারসহ অনেকে।

তিনি বলেন, আমরা নামের জন্য মুক্তিযুদ্ধ করি নাই। কিন্তু একবার ভাবুন সেই সময়ে আমরা যদি অস্ত্র না ধরতাম তাহলে আজ কী হতো তা আমি জানি না। আমরা চাই একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হতে। কিন্তু সেটা হচ্ছে না। আজকে অনেকেই বলছেন যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে এমন অনেক কর্মকাণ্ড হয়েছে যার ফলে অমুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযোদ্ধা হয়েছেন। সেটা এখন সংশোধনের প্রয়োজন। এখন সেটা কীভাবে সংশোধন করা যায় সেই বিষয়ে আমাদের আলোচনা করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের অধিকাংশ কর্মকর্তা অমুক্তিযোদ্ধা এবং অনেকেই রাজাকার। তারা তো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কথা বলবে না। আমরা তো তাকিয়ে থাকি মন্ত্রণালয়ের দিকে। তারা যদি আমাদের কথা না শোনে তাহলে একটা সংগঠন করে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে হবে।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, শরিয়তপুর জেলায় মুক্তিযুদ্ধের পর ১৮২ জন মুক্তিযোদ্ধা অস্ত্র জমা দেয়। তখন মাত্র ১৮২ জন মুক্তিযোদ্ধা ছিল এই জেলায়, আর এখন ৪ শত মুক্তিযোদ্ধা বাকীরা এলো কোথা থেকে। ভোয়া মুক্তিযোদ্ধারা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার সম্মান নষ্ট করছে। দেশে কোনোভাবেই ৪ / ৫ লাখ মুক্তিযোদ্ধা হতে পারে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ