সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

 কোনও সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়নি  বৈদ্যুতিক  শটসার্কিট  থেকেও আগুনের সূত্রপাত ঘটেনি

 

 

তোফাজ্জল হোসেন কামাল : রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় কোনও সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়নি এবং  বৈদ্যুতিক শটসার্কিট থেকেও আগুনের সূত্রপাত হয়নি। ভয়াবহ আগুনের শুরু হয়েছে ওয়াহেদ ম্যানশনের দোতলা থেকে। ওই ভবনের দোতলার কেমিক্যাল গোডাউনে কোনও লিকেজ থেকে আগুনের শুরু হয়েছে বলে মনে করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি। গতকাল বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে দেয়া প্রতিবেদনে এমনটিই বলেছে।

প্রতিবেদন হাতে পাওয়া নিয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল গতকাল সন্ধ্যায় বলেন, ‘তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি। তবে এখনও বিস্তারিত পড়ে দেখিনি।’ আগামীকাল শুক্রবার (৮ মার্চ) গণমাধ্যমের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলবেন বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতের ভয়াবহ এই আগুনের ঘটনা তদন্তে গঠিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদনটিতে নানা মন্তব্যসহ বেশ ক’টি সুপারিশ পেশ করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) বিকাল পাঁচটার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে তার দফতরে তদন্ত কমিটির প্রধান ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (অগ্নি) প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদনের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তী কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান। তিনি বলেন, ‘তদন্ত প্রতিবেদন মন্ত্রীর কাছে জমা দিয়েছি। এ বিষয়ে যা বলার তিনি বলবেন।’

জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি। তবে এখনও বিস্তারিত পড়ে দেখিনি।’

আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোনও সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়নি।  বৈদ্যুতিক শটসার্কিট কিংবা গোলোযোগ থেকেও আগুনের সূত্রপাত হয়নি। ওয়াহেদ ম্যানশনের দোতলার কেমিক্যাল গোডাউন থেকেই আগুনের সুত্রপাত হয়েছে, যা পরে ভয়াবহ আকার ধারণ করে।’

এই অগ্নিকান্ডের ব্যাপারে প্রধানত কাদের দায়ী করছেন জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘যে গোডাউন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে, তারাই-তো দায়ী হওয়ার কথা।’ তদন্ত প্রতিবেদনে কী মতামত দেওয়া হয়েছে, সেটা দেখেই পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানায়, চকবাজারের আগুনের ঘটনায় অনেককেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বিভিন্নজনের কাছ থেকে তারা বিভিন্ন মতামত পেয়েছেন। তদন্ত শেষে তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে, ওয়াহেদ ম্যানশনের দোতলা থেকেই আগুনের শুরু হয়েছে। বৈদ্যুতিক কোনও গোলোযোগ কিংবা সিলিন্ডার বিস্ফোরণের কারণে এ আগুন লাগেনি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গঠিত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহাম্মেদ খান, ঢাকা নগর কর্তৃপক্ষের একজন প্রতিনিধি (যুগ্ম-সচিব পদমর্যাদার), ঢাকা জেলার একজন ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপ-কমিশনার।

চকবাজারের আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭১ জন। এছাড়া, ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনটে দগ্ধ চার জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ