মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ভারতীয় পাইলটকে আজ মুক্তি দিচ্ছে পাকিস্তান হিসাবে ভুল করলে পরিণতি ভয়াবহ---মোদিকে ইমরান

 

সংগ্রাম  ডেস্ক: যুদ্ধ পরিস্থিতির লাগাম টেনে ধরতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। দ্রুত আলোচনায় বসতে ভারতকে আমন্ত্রণও জানিয়েছেন তিনি। তার মতে, কোন পক্ষ হিসাবে ভুল করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। যার পরিণতি হবে ভয়াবহ। খবর ডনের।

এর আগে বুধবার সকালে জম্মু-কাশ্মীরে ভারতীয় যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত হয়ে ২ পাইলটসহ বিমান বাহিনীর ৬ কর্মকর্তা নিহত হন। এ সময় এক বেসামরিক নাগরিকও নিহত হন। খবর এনডিটিভির। তবে পাকিস্তান বলছে, তারা গুলী করে দুটি ভারতীয় বিমান ভূপাতিত করেছে। এর একটি আজাদ কাশ্মীর এবং অপরটি জম্মু কাশ্মীরে ভূপাতিত হয়েছে।

ইমরান বলেন, ‘আমাদের হামলা করার একটাই উদ্দেশ ছিল। সেটা হল আমরা ভারতকে বোঝাতে চেয়েছি যদি ওরা আমাদের দেশে ঢুকে হামলা করতে পারে তাহলে জবাব দিতে আমরাও পারি।’

তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের মাটি থেকেই ভারতের দুটি মিগ বিমানকে নামান সম্ভব হয়েছে। আর তাই এখন সময় এসেছে যে আমরা সুস্থ বুদ্ধির ব্যবহার করি।’

ইমরান সতর্ক করে বলেন, ভারতকে বলতে চাই আমাদের দু'পক্ষের কাছে যে পরিমাণ অস্ত্র আছে তাতে হিসাবে ভুল করা চলে না। যদি ভুল করি তবে ভয়াবহ পরিণতি সামাল দেয়ার সামর্থ কী আমাদের আছে? এ ধরনের কাজ চলতে থাকলে বিষয়টি আমার নিয়ন্ত্রণে থাকবে না, মোদির নিয়ন্ত্রণেও থাকবে না। আর তাই আমরা ভারতকে আলোচনায় বসতে অনুরোধ করছি।’

আজাদ-কাশ্মীরে ভূপাতিত হওয়া ভারতীয় যুদ্ধ বিমানটির ছবি প্রকাশ করেছে পাকিস্তানের আন্তবাহিনী জনসংযোগ অধিদপ্তর-(আইএসপিআর)। আটক ২ ভারতীয় পাইলটের ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। এছাড়া বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার আরেকটি ভিডিও প্রকাশ করেছে রেডিও পাকিস্তান।

তবে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে শুরুতে বলা হয়, তাদের একটি বিমান কারিগরি ত্রুটির বিধ্বস্ত হয়েছে এবং আরেকটি বিমান পাইলটসহ নিখোঁজ। পরে নিখোঁজ হওয়া বিমানটির পাইলট পাকিস্তানের হেফাজতে রয়েছে বলে নিশ্চিত করে ভারত। আর জম্মু-কাশ্মীরে বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটি একটি হেলিকপ্টার ছিলো বলে দেশটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

ভারতীয় পাইলটকে শুক্রবার মুক্তি দেবে পাকিস্তান 

ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলট অভিনন্দন বর্তমান যে মুক্তি পাচ্ছেন, তার আভাস পাওয়া গিয়েছিল জিও নিউজকে দেওয়া পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাক্ষাৎকার থেকে। তিনি বলেছিলেন, দুই দেশের উত্তেজনা নিরসনে ভূমিকা রাখলে আটক ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলটকে মুক্তি দিতে প্রস্তুত রয়েছে পাকিস্তান। তার কয়েক ঘণ্টার মাথায়, পার্লামেন্ট ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নিশ্চিত করেছেন,আজ শুক্রবারই তারা আটক পাইলটকে ফিরিয়ে দেবেন। ভারতের পক্ষ থেকে তার শর্তহীন মুক্তি দাবি করা হয়েছিল। 

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভারতীয় বিমান বাহিনী পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে বিমান থেকে বোমাবর্ষণ করে। পরদিন বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে এক পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। পাল্টাপাল্টি হামলায় দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে গতকাল বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘উত্তেজনা নিরসনে ভূমিকা রাখলে আমরা ভারতীয় পাইলটকে হস্তান্তর করতে প্রস্তুত’।

এদিকে পার্লামেন্টের এক যৌথ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন, শান্তির নিদর্শন অংশ হিসেবে আমরা আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে তিনি বলেন, উত্তেজনা নিরসনে আমাদের এই পদক্ষেপকে দুর্বলতা হিসেবে দেখা ঠিক হবে না। পরিস্থিতিকে আরও উত্তপ্ত না করতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। ইমরান বলেন, এটাকে আর টেনে নেবেন না, পাকিস্তান প্রতিশোধ নিতে বাধ্য হবে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতের ‘ সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের’ গাড়িবহরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় বাহিনীটির অন্তত ৪০ জন সদস্য প্রাণ হারান। পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ হামলার দায় স্বীকার করে। মঙ্গলবার সেই জইশ-ই মোহাম্মদের ঘাঁটি ধ্বংসের কথা বলেই ৭১-পরবর্তী ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের আকাশসীমায় ঢুকে বিমান হামলা চালায় ভারত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ