বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

সিদ্ধিরগঞ্জে একই পরিবারের ৫ জন নিখোঁজের ১০ দিন পর ৪ জন উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নিখোঁজের দশদিন পর একই পারিবারের নিখোঁজ পাঁচজনের ভেতরে চারজনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ রাজধানীর কেরানীগঞ্জ ও ব্রাক্ষণবাড়িয়া থেকে তাদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জে নিয়ে আসে। গত বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুুলিশ সুপারের প্রেস কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, উদ্ধারকৃতরা হলো জামাল সরদারের বড় মেয়ে আশামনি (১১), প্রিয়া মনি (৪) ও তার ভায়রার মেয়ে সোমাইয়া (১৪) ও শ্যালকের ছেলে আজিম (৭)। তবে নিখোঁজ রয়েছে তার স্ত্রী নিপা (৩০)। পুলিশ সুপার জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের মাদানী নগর নুরবাগ এলাকার এমদাদুল হক ভুইয়া পাঁচ তলার বাড়ির ভাড়াটিয়া গার্মেন্টস কর্মকর্তা জামাল সরদারের স্ত্রী ফারিদা ওরফে নীপা ও তার দুই মেয়েসহ একই পারিবারের পাঁচ সদস্য নিখোঁজ হয়। এ ব্যাপারে গার্মেন্টস কর্মকর্তা জামাল সরদার সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন। পরে পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে জামাল সর্দারের ভায়রার ছেলে নাজিম উদ্দিন ওরফে আজিমকে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ ইকুরিয়া এলাকার নূরানী মাদরাসা থেকে, বড় মেয়ে আশা মনিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ল্যাবরেটরি আবাসিক স্কুল থেকে, ছোট মেয়ে প্রিয়া মনি এবং ভাইরার মেয়ে সোমাইয়াকে কেরানীগঞ্জ একটি এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। এসপি হারুন অর রশীদ জানান, উদ্ধারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে গার্মেন্টস কর্মকর্তার স্ত্রী ফরিদা ওরফে নীপা পরকিয়া প্রেমের টানে সুমন নামের এক ছেলের সাথে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যায়। তবে যাওয়ার আগে পরিকল্পিতভাবে ছেলে মেয়েদের বিভিন্ন স্থানে রেখে যায়। নিপা বেগম যাওয়ার সময় ঘর থেকে টাকা পয়সা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়।  তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় স্বামী জামাল সরদার বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ স্ত্রী ফরিদা ওরফে নীপা ও তার পরিকীয়া প্রেমিক সুমনকে গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে। উল্লেখ্য গত ১০ ফেব্রুয়ারি সিদ্ধিরগঞ্জের মাদানী নগর নুরবাগ এলাকায় থেকে একই পরিবারে পাচঁ সদস্য নিখোঁজ হয়। বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে এলাকায় ব্যাপক আলোচিত হয়।
গার্মেন্টস কর্মী নিখোঁজ
বাড়ি থেকে অফিসের উদ্দেশ্যে বের হয়ে ৮ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন সার্থী রানী বিশ্বাস নামের এক গার্মেন্টস কর্মী। এব্যাপারে ১২ ফেব্রুয়ারি সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং-৬৪৮) করেছেন নিখোঁজ সাথীর ভাই সজিব বিশ্বাস। সাথী ফতুল্লার নিতাইপুর (হিন্দুপাড়া) এলাকার সত্যরঞ্জনের মেয়ে। জিডিতে সজিব বিশ্বাস উল্লেখ করেন, তাঁর বোন সাথী রানি বিশ্বাস সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডে অবস্থিত রেকা গার্মেন্টে জুনিয়র অপারেটর হিসেবে কাজ করেন। গত ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ৬টায় সাথী অফিসের উদ্দেশ্যে বের হন। ওইদিন দুপুরে ছুটি নেয়ার পর তিনি আর কর্মস্থলে ফেরত যাননি এমনকি বাসায়ও ফেরেননি। আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন হদিস পাওয়া যায়নি। সজিব বিশ্বাস জানান, সাথীর খোঁজে তার বাবা-মা ও পরিবারের সদস্যরা অস্থির হয়ে উঠেছেন। সাথীর উচ্চতা ৫ ফুট, স্বাস্থ্য ভালো, মুখমন্ডল গোলাকার, গায়ের রং ফর্সা। নিখোঁজ হওয়ার সময় তার পরনে ছিল সেলোয়ার-কামিজ। কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি তাঁর খোঁজ পেলে নিকটস্থ থানায় কিংবা সজিবের মোবাইলে (০১৯৮০-৪৮০ ৩৩২, ০১৯২১-১১৫ ০৯৭) তথ্য দিয়ে সাহায্য করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ