বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সবচেয়ে দামি মাশরাফি-মাহমুদউল্লাহ

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) এবার সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাচ্ছেন মাশরাফি আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তাদের পারিশ্রমিক ৩৫ লাখ টাকা করে। এই দুইজন আছেন ‘এ+’ ক্যাটাগরিতে। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠিত হবে আজ। তবে ক্লাবগুলো গত মৌসুম থেকে তিনজন করে খেলোয়াড় ধরে রাখার সুযোগ পেয়েছে। আর ধরে রাখা  খেলোয়াড়দের তালিকা প্রকাশ করেছে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিস (সিসিডিএম)। আগামী ১ মার্চ শুরু হওয়ার কথা এবারের ডিপিএল। ওই সময় নিউজিল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজে ব্যস্ত থাকবে বাংলাদেশ দল। জাতীয় দলের অনেক ক্রিকেটারকে তাই টুর্নামেন্টের শুরুতে পাওয়া যাবে না। নিউজিল্যান্ড সিরিজ শেষে ২২ মার্চ থেকে তাদের পাওয়ার কথা। তবে আন্তর্জাতিক ব্যস্ততার কারণে আসরে দেশসেরা ক্রিকেটারদের পাওয়া যাবে না ঠিক মতো। এরই মধ্যে ডিপিএল খেলতে অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহীম। তারা এরই মধ্যে বিসিবির কাছে বিশ্রামের জন্য আবেদন করেছেন। তবে মাশরাফি বিন মর্তুজা ও মাহমুদউল্লাহ খেলছেন ডিপিএলে। এই দুইজন আছেন ‘এ+’ ক্যাটাগরিতে। এবারের আসরে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাচ্ছেন এই দুই ক্রিকেটারই। তাদের পারিশ্রমিক ৩৫ লাখ টাকা করে। এবার খেলোয়াড়দের ‘এ’ প্লাস, ‘এ’, ‘বি’ প্লাস, ‘বি’, ‘সি’ প্লাস, ‘সি’, ‘ডি’- এই সাত ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে। তবে প্রতিটি ক্যাটাগরিতে আবার পারিশ্রমিকের তারতম্য রয়েছে। প্লেয়ার্স ড্রাফটের অন্য ক্যাটাগরির পারিশ্রমিক  যেভাবে ধরা হয়েছে-‘এ’ গ্রেডে ২০-২৫ লাখ, ‘বি’ প্লাস গ্রেডে ১৫-১৯ লাখ, ‘বি’ গ্রেডে ১২-১৪ লাখ, ‘সি’ প্লাস  গ্রডে ৮ লাখ, ‘সি’ গ্রেডে ৫ লাখ এবং ‘ডি’ গ্রেডে ২-৪ লাখ টাকা। মাশরাফি ও মাহমুদউল্লাহ ছাড়াও ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে আছেন মোস্তাফিজ, মেহেদী হাসান মিরাজ, নাসির হোসেন, লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়, রুবেল হোসেন ও ইমরুল কায়েস। এর মধ্যে এনামুল পাবেন ২৬ লাখ। ইমরুল, মোস্তাফিজ, মিরাজ, রুবেল ও লিটন পাচ্ছেন ২৫ লাখ, আর নাসির ২৩ লাখ। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে থেকেও নাসিরের সমান ২৩ লাখ টাকা পাবেন মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিথুন ও তাইজুল ইসলাম। ‘বি’ ক্যাটাগরিতে থাকা তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার পাবেন ১৮ লাখ টাকা। ড্রাফটের আগেই তিনজন করে ক্রিকেটার বেছে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছিল ডিপিএলের দুই নবাগত দল উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাব ও বিকেএসপি। উত্তরা বেছে নিয়েছে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে থাকা নাজমুল ইসলাম অপু, সাব্বির রহমান ও সানজামুল ইসলামকে। তিনজনই পাবেন ২০ লাখ টাকা। বিকেএসপি ‘ডি’ ক্যাটাগরি থেকে বেছে নিয়েছে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের তিন ক্রিকেটার শামীম হোসেন পাটোয়ারি, আকবর আলী ও পারভেজ  হোসেন ইমনকে। তারা পাবেন সাড়ে তিন লাখ টাকা। মাহমুদউল্লাহকে পুরো মৌসুমে পাওয়া যাবে না বলে তাকে ছেড়ে দিয়েছে গতবারের ক্লাব প্রাইম ব্যাংক। পুরো মৌসুমে পাওয়া যাবে না বলে মাহমুদউল্লাহর মতো জাতীয় দলের অনেক ক্রিকেটারকেই ধরে রাখেনি ক্লাবগুলো। মাহমুদউল্লাহ আর  মোস্তাফিজুর রহমানকে পাওয়া যাবে আরো পর, ৬ এপ্রিল থেকে। গতবার আবাহনীর শিরোপা জয়ে বড় অবদান ছিল মাশরাফি ও নাজমুল হোসেন শান্তর। ১৬ ম্যাচে ৩৯ উইকেট নিয়ে মাশরাফি ছিলেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি। সমান ম্যাচে ৭৪৯ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন শান্ত। এই দুজনের সঙ্গে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকেও ধরে রেখেছে আবাহনী। 

যাদের ধরে রাখল ক্লাবগুলো:

আবাহনী লিমিটেড: মাশরাফি বিন মুর্তজা (এ প্লাস), মোসাদ্দেক হোসেন (এ), নাজমুল হোসেন শান্ত (এ)।

শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব: জিয়াউর রহমান (এ), নুরুল হাসান সোহান (এ), তানভীর হায়দার (বি প্লাস)

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ: নাঈম ইসলাম (এ), আসিফ হাসান (বি), নাঈম শেখ (বি)

প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব: ফরহাদ রেজা (এ), মার্শাল আইয়ুব (এ), আরাফাত সানী (বি প্লাস)

খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি: রবিউল ইসলাম রবি (বি), মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন (সি), তানভীর ইসলাম (সি)

গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স: ইমরুল কায়েস (এ প্লাস), মেহেদী হাসান (বি প্লাস), আবু হায়দার রনি (বি প্লাস)

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব: রকিবুল হাসান (বি প্লাস), কাজী অনিক ইসলাম (সি প্লাস), ইরফান শুক্কুর (বি)

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব: আরিফুল হক (এ), জাকির হাসান (বি), মোহাম্মদ আল আমিন (এ)

শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব: শুভাগত হোম (এ), আফিফ হোসেন (বি), তৌহিদ হৃদয় (সি প্লাস)

ব্রাদার্স ইউনিয়ন: জুনায়েদ সিদ্দিক (বি প্লাস), মিজানুর রহমান (বি প্লাস), ইয়াসির আলী (বি প্লাস)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ