সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

কান্না-ক্ষোভ ও প্রতিশোধের অঙ্গীকারে কাশ্মীর হামলায় নিহতদের শ্রদ্ধা

১৬ ফেব্রুয়ারি, হিন্দুস্তান টাইমস : কাশ্মীরে হামলায় নিহত আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএ জওয়ানদের মরদেহ নিজ নিজ গ্রামে পৌঁছাতে শুরু করেছে। দেশটির সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, কান্না, ক্ষোভ আর পাকিস্তানবিরোধী স্লোগানে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জওয়ানদের শেষকৃত্যে অংশ নিচ্ছেন ভারতের বিভিন্ন গ্রামের হাজারো বাসিন্দা।

স্থানীয় সময় শনিবার সকাল নয়টার দিকে টিরভা কান্নাউজে পৌঁছায় জওয়ান প্রদীপ কুমারের মরদেহ। হাজার হাজার শহরবাসী জড়ো হয়ে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানায়। সকাল সাতটায় উত্তর প্রদেশের উন্নাওতে অজিত কুমার আজাদের মরদেহ গ্রহণ করে তার পরিবারের সদস্যরা। নিহত এই জওয়ানের স্ত্রী ও দুই মেয়ে রয়েছে।

উত্তর প্রদেশের বারানসির তোফাপুর গ্রামে রমেশ যাদবের মরদেহ পৌঁছায় সকাল সাড়ে আটটার দিকে। ভারতের তিন রঙ্গা জাতীয় পতাকা তুলে ধরে হাজার হাজার গ্রামবাসী ‘রমেশ যাদব অমর রহে’ (রমেশ যাদব অমর হোক) স্লোগানে মুখরিত করে তোলে। আগ্রার কেহারি গ্রামে ৪৮ বছর বয়সী কৌশল কুমার রাওয়াতের মরদেহ পৌঁছালে ক্ষোভে ফেটে পড়ে তার পরিবারের সদস্যরা ও গ্রামবাসী। একসঙ্গে পাকিস্তানবিরোধী স্লোগানে চারপাশ মুখর করে তোলে তারা। নিজ পৈত্রিক বাড়ির পাশে তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যোগ দেন স্থানীয় পার্লামেন্ট সদস্য চৌধুরি বাবুলাল এবং এমএলএ হেমলতা দিবাকর। কান্না পুষে রেখে সেসময় রাওয়াতের ৮০ বছরের বৃদ্ধ পিতা গীতা রাম রাওয়াত ছেলে হত্যার প্রতিশোধ নিতে পাকিস্তানকে সমুচিত জবাব দেওয়ার আহ্বান জানান।

পাঞ্জাবের মোগা এলাকায় বাসচালক জয়মাল সিংয়ের মরদেহ পৌঁছায়। হামলার সময়ে জওয়ানদের বহনকারী বাসটি চালাচ্ছিলেন তিনি। শনিবার বিকেলে তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে। বিহারে মুখ্যমন্ত্রী নিতিশ কুমার এবং রাষ্ট্রীয় জনতা দলের নেতা তেজস্বী যাদব নিহত কনস্টেবল রাতক কুমার এবং হেড কনস্টেবল সঞ্জয় কুমার সিনহার মরদেহে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার কাশ্মিরের পুলওয়ামা জেলায় পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী জয়েশ-এ-মোহাম্মদের চালানো হামলায় ৪০ জনেরও বেশি জওয়ান নিহত হয়। শুক্রবার সন্ধ্যায় সি-১৩০জে সুপার হারকিউলিস বিমানে করে রাজধানী দিল্লিতে নেওয়া হয়। পরে নিহত জওয়ানদের মরদেহ নিজ নিজ শহরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এর আগে কাশ্মির থেকে জওয়ানদের মরদেহ দিল্লিতে পৌঁছালে বিমানবন্দরেই শ্রদ্ধা জানান ভারতের শীর্ষ রাজনীতিকরা। এনডিটিভি জানায়, বিমানবন্দরে শ্রদ্ধা জানানো ভারতীয় নেতাদের মধ্যে রয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজনাথ সিং, নির্মলা সীতারমন ছাড়াও কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। রাজনৈতিক নেতারা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল সুনিল লানবা এবং বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়া।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ