সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মিরসরাইয়ে দশ বছরে এলজিইডি’র ব্যাপক উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বিগত দশ বছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ব্যাপক উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ করেছে। গ্রামীণ সড়কের উন্নয়নের পাশাপাশি অবকাঠামো খাতেও দপ্তরটির উন্নয়ন কর্মকান্ড দৃশ্যনীয়। উপজেলার মাঝ দিয়ে যাওয়া ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে সংযুক্ত সকল রাস্তা কার্পেটিংয়ের পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলের অধিকাংশ রাস্তাই এখন কার্পেটিং করা। এতে উপজেলাবাসীর স্বস্তির পাশাপাশি চাঙ্গা হয়েছে গ্রামীণ অর্থনীতিও।
জানা গেছে, বিগত ২০০৯-২০১৮ সালে মিরসরাই উপজেলায় ১৯৮.৭ কি.মিটার গ্রামীণ সড়ক উন্নয়ন এবং ১৪২.৩ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে এই উপজেলায় ৯২.৪ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক নির্মাণাধীন এবং ৩৫.৫ কিলোমিটার গ্রামীণ সড়ক রক্ষণাবেক্ষণাধীন রয়েছে। ১৫৬.৫ মিটার সেতু/কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলায় ৪৪২.০০ মিটার সেতু/কালভার্ট নির্মাণাধীন রয়েছে। উপজেলা পরিষদ সম্প্রসারিত ভবন, ১টি উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স, ৩টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলায় ৩টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স মেরামত এবং ২টি হাট-বাজার নির্মাণাধীন রয়েছে। উপজেলার ৯৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১টি প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (ইউআরসি), ৩০টি অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাসস্থান নির্মাণ করা হয়েছে। ১টি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে। যেটি এখন উদ্বোধনের অপক্ষোয়। উপজেলায় ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণাধীন রয়েছে। উপজেলায় ২১৫০.০০ হেক্টর জমির পানিসম্পদ উন্নয়ন করা হয়েছে। ৯টি স্লুইচ/রেগুলেটর নির্মাণ করা হয়েছে। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় প্রায় ১১ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) উপজেলা প্রকৌশলী এএসএম রাশেদুর রহমান জানান, বিগত দশ বছরে মিরসরাইতে এলজিইডি ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছে। যার সুফল উপজেলাবাসী ভোগ করতেছে। উপজেলার সকল ব্যস্ততম সড়কগুলো কার্পেটিং করার পাশাপাশি গ্রামের প্রত্যন্ত সড়কগুলোও কার্পেটিং করা হয়েছে। সড়ক যোগাযোগ সহজ হয়ে যাওয়ায় মানুষ অল্প সময়ের মধ্যে গন্তব্যস্থলে যেতে পারতেছে। যে সকল সড়কে সংস্কারের কাজ বাকী রয়েছে সেগুলো শীঘ্রই সম্পন্ন হয়ে যাবে বলেও তিনি জানান।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও হাইতকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়নের সরকার। মিরসরাইয়ের মাটি ও মানুষের অকৃত্রিম বন্ধু গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি মহোদয় মিরসরাইতে বিগত দশ বছর যেসকল উন্নয়ন কর্মকান্ড হাতে নিয়েছেন তা নজিরবিহীন। যা এর আগে কোন সরকার করেনি। উপজেলাবাসীর যোগাযোগের সুবিধার্থে এলজিইডি’র বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পগুলোর সুফল ইতমধ্যে উপজেলাবাসী ভোগ করতেছেন। শুধু সড়ক যোগাযোগ নয় অবকাঠামোখাতেও এলজিইডি উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছে বিগত সময়ে। উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নে এলজিইডি কাজ করেছে। আগে বর্ষাকালে মানুষ গাড়ি নিয়ে মহাসড়ক থেকে মাটির রাস্তা দিয়ে বাড়ি যেতো পারতো না। এখন সারা বছরই গ্রামীণ কার্পেটিং সড়কে গাড়ী চলে। এতে গ্রামীণ অর্থনীতিও চাঙ্গা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ