রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

নারায়ণগঞ্জ ড্রেজারের সম্মতি পেলে স্কুলের দায়িত্ব নেবো -সেলিম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ সংবাদাদাতা: বন্ধ ঘোষণার পর আবার চালু হওয়া শহরের ড্রেজার জুনিয়র হাই স্কুলটি পরিদর্শন করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান। মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলটি পরিদর্শনে যান তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফজলুল হক রুমন রেজা, জেলা শিক্ষা অফিসার শরিফুল ইসলাম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অহিন্দ্র কুমার মন্ডল, নারায়ণগঞ্জ সিটি করর্পোরেশনের কাউন্সিলর জমশের আলী ঝন্টু, কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, সাবেক কাউন্সিলর কামরুল হাসান মুন্না, ড্রেজার জুনিয়র হাইস্কুলের সহকারি শিক্ষক পারভীন আক্তার মালা।
পরিদর্শন কালে সেলিম ওসমান বলেন, ড্রেজার পরিদপ্তরের লিখিত সম্মতি পেলে আমি ও জেলা পরিষদ একত্রিত হয়ে স্কুলটি যারা পরিচালনা করছেন তাদের সাথে বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে দেখবো কীভাবে স্কুলটি পরিচালনা করা যায়। তবে ড্রেজারের সম্মতি প্রয়োজন। সম্মতি পেলেই স্কুলটি পরিচালনা করা যাবে।
তিনি বলেন, আসলে স্কুলটি একটি সংস্থার মাধ্যমে চলছিল। স্কুলটি একটি মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে তৈরি হয়েছিল। যেহেতু আর্থিকভাবে এটা চালাতে পারে নাই তাই বন্ধ করে দিয়েছিল। যেহেতু বর্তমান সরকারের কাছে শিক্ষা ব্যাপারটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই এখানে আমার আগমন যাতে স্কুলটি বন্ধ না হয়ে যায়। ড্রেজার যদি আমাদের কাছে দায়িত্ব দেয় তাহলে ঐ দায়িত্বটি অবশ্যই লিখিত হতে হবে। আপাতত, স্কুলটি খুলে দেয়া হয়েছে কিন্তু স্কুলটি কীভাবে পরিচালনা হবে, কারা পরিচালনা করবেন, এই জায়গাটি তারা বরাদ্দ করবেন কিনা এই ব্যাপারে বিস্তারিত দিলে আমি এবং জেলা পরিষদ একত্রিত হয়ে যারা স্কুলটি পরিচালনা করছেন তাদের সাথে জয়েন মিটিং করে সিদ্ধান্ত নিব।
বরাদ্ধ না থাকায় পহেলা জানুয়ারী ড্রেজার জুনিয়র হাইস্কুলটি বন্ধ করে দেয় নারায়ণগঞ্জ ড্রেজার পরিদপ্তর কর্তৃপক্ষ। এতে প্রায় তিনশ’ শিক্ষার্থীর লেখাপড়া ও ১০ শিক্ষককের ভবিষ্যত অনিশ্চয়তার পথে বসেছে। ৩৫ বছরের প্রতিষ্ঠিত এ স্কুল চালু রাখতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সহ বিভিন্ন মহলে আবেদন জানান শিক্ষকরা।এ ব্যপারে সংবাদ প্রকাশের পর নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সেলিম ওসমানের নির্দেশে স্কুলটি চালু করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ