বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

নিউজিল্যান্ড সফর বিশ্বকাপের জন্য ভালো প্রস্তুতি হবে -----মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার : এবারের নিউজিল্যান্ড সফর বিশ্বকাপের জন্য ভালো প্রস্তুতি হবে বলে মনে করেন জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৩ ফেব্রুয়ারি প্রথম ওয়ানডে টাইগারদের। এর আগে ১০ তারিখে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। যেখানে যোগ দিতে পারবেন না দ্বিতীয় ধাপে নিউজিল্যান্ডে যাওয়া সাকিব ও মাশরাফিরা। তাই  কোনো রকমের প্রস্তুতি ছাড়াই এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছে টাইগাররা। তবে এই সফর বিশ্বকাপের জন্য ভালো প্রস্তুতি হবে বলে মনে করেন মাশরাফি। মাশরাফি বলেন,‘ প্রস্তুতি নিয়ে গিয়ে গতবার পারিনি। এবার প্রস্তুতি ছাড়া গিয়ে যদি পারি তাহলে পরেরবার প্রস্তুতি ছাড়াই যাবো। তবে বিশ্বকাপের জন্য এটা খুব ভালো প্রস্তুতি। কমপক্ষে সামনের ছয় বা পাঁচ মাসের দিকে তাকান এটা খুব আদর্শ সময়। বিশ্বকাপের জন্য একটা বেইস তৈরি করা যাবে। বিপিএল চলায় প্রস্তুতিতে ব্যাঘাত ঘটে। আমাদেরকে মানিয়ে নিতে হবে। অবশ্যই জেতার চেষ্টা করবো। সম্ভাব সেরা ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।’ নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দলটির বিপক্ষে এখনো ওয়ানডে ম্যাচে জয় পায়নি বাংলাদেশ। নিজেদের  শেষ ওয়ানডে সিরিজে ভারতের বিপক্ষে  ৪-১ ব্যবধানে হেরেছে কিউইরা। স্বাগতিকরা বাজে ফর্মে থাকলেও এবার এই দলটির বিপক্ষে দুর্দান্ত লড়াই হবে বলে মনে করেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘বেশি আশা কাউকে দেব না। আমি অনেক ইতিবাচক অবশ্যই। বলার সময় এতেটা আত্মবিশ্বাস থাকে না আমার। তবে পূর্ণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলবো আশা করি। সম্ভাবনা তো অবশ্যই আছে। শেষ সফরে কিন্তু আমরা একটায় জয়ের কাছাকাছি ছিলাম। আমি তো এবার দারুণ কিছুর প্রত্যাশা করছি। তবে সেখানে ভালো করাটা চ্যালেঞ্জিং হবে।’ দুই বছর আগে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সিডনিতে ১০ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প করেছিলেন মাশরাফি মুর্তজারা। কিন্তু তিন ম্যাচের সিরিজে অসহায় আত্মসমর্পণ করে সফরকারীরা। এবার একেবারেই প্রস্তুতি নেই বাংলাদেশের। কিন্তু তা নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন না অধিনায়ক। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি কেবল একটি ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। প্রস্তুতহীন দল নিয়ে দুর্ভাবনায় থাকতে চান না মাশরাফি। ওয়ানডে অধিনায়ক নির্ভার কণ্ঠে বলেছেন, ‘প্রস্তুত নিয়ে গিয়ে গতবার সফল হতে পারিনি, দেখি এবার কী হয়! এবার প্রস্তুতি ছাড়া যদি ভালো কিছু করি, তাহলে পরেরবার প্রস্তুতি ছাড়াই যাব। বিপিএল চলছিল, কিছু করার নেই। আমাদের মানিয়ে নিতে হবে। খারাপ হলে সবাই সমালোচনা করবে, ভালো হলে প্রশংসা করবে। তবে অবশ্যই জেতার চেষ্টা করবো। নিজেদের সেরাটাই খেলব আমরা।’ নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা মোটেও ভালো নয়। সেই বৃত্ত থেকে বের হওয়ার আশ্বাস দিতে চান না মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘বেশি আশা কাউকে দিবো না। অবশ্যই আমি অনেক ইতিবাচক। পূর্ণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলবো। আগের নিউজিল্যান্ড সফরে আমরা একটি ম্যাচে জয়ের কাছাকাছি ছিলাম। ২৫১ রানে তাদের অলআউট করি। ইমরুল ও সাব্বিরের জুটি একশর মতো হয়েছিল, কিন্তু তারপর ধস। খুব ভালো একটা সুযোগ আমরা পেয়েছিলাম, হাতছাড়া করেছি। আশা করবো এবার সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারবো। কেউই জানে না কী হতে পারে। তবে সিরিজটা আমাদের জন্য সহজ হবে না।’ ফল যেমনই হোক, সেটা নিয়ে না ভেবে এই সিরিজকে বিশ্বকাপের আদর্শ প্রস্তুতি হিসেবে দেখছেন মাশরাফি, ‘আমরা এই সিরিজকে বিশ্বকাপের জন্য ভালো প্রস্তুতি হিসেবে দেখছি। সামনের ৫  থেকে ৬ মাসের দিকে তাকান, এটা খুব আদর্শ কন্ডিশন।’ এদিকে বিপিএলের কারণে ১৫ জনের দল একসঙ্গে নিউজিল্যান্ডে যেতে পারেনি। টেস্ট দলের দুই ক্রিকেটার মুমিনুল হক ও সাদমান ইসলামকে পাঠিয়ে কোনও রকমে একাদশ গঠন করছে বাংলাদেশ! আজ ক্রিকেটার শফিউল ইসলাম ও মোহাম্মদ মিঠুন চড়বেন বিমানে। তাদের সঙ্গে টেস্ট স্কোয়াডের দুই ক্রিকেটার মুমিনুল ও সাদমানকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও মাশরাফি চাইছেন, নিউজিল্যান্ড বোর্ডের সহায়তায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান ও বোলাররা যেন যথেষ্ট অনুশীলন করার সুযোগ পায়, ‘আমাদের ব্যাটসম্যানরা ব্যাট করা এবং বোলাররা বল করার সুযোগ পেলে ভালো হবে। অল্প সময়ের মধ্যে গিয়ে আমাদের জন্য কাজটা কঠিন।’ বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ড বোর্ড একাদশের ১২ সদস্যের কেউই খুব বেশি পরিচিত নন। স্কোয়াডে থাকা ক্রিকেটারদের মধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার অভিজ্ঞতা আছে কেবল জিৎ রাভালের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ