শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

বই কিনুন। বই কিনে কেউ  দেউলিয়া হয় না --হাসান আলীম

 

এবারের বইমেলায় আপনার কয়টি বই বের হয়েছে?

উত্তর : কবিতার বই ‘একটি চেয়ারের গল্প’ এবারের বইমেলায় প্রকাশ পেয়েছে। এটি আমার ১৭তম কাব্যগ্রন্থ। ইনভেলাপ পাবলিকেশনস এটি প্রকাশ করেছে। অন্যটি গবেষণা গ্রন্থ। নাম ‘নজরুলের বিদ্রোহী কবিতার নন্দনতত্ত্ব’ এটি নজরুল একাডেমী প্রকাশের দায়িত্ব নিয়েছে।  এটিরও কাজ চলছে।

বইয়ের বিষয়বস্তু কি?

উত্তর : ‘একটি চেয়ারের গল্প’ আমার ভিন্ন স্বাদের প্রতিকী কাব্যগ্রন্থ। এ গ্রন্থে মোট ৩৪টি কবিতা রয়েছে। অধিকাংশ কবিতা সাধারণ পোকা-মাকড়ের প্রতিকাশ্রয়ে মানব জীবনের বিভিন্ন ঘটনা রসালোভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। এরূপ কয়েকটি কবিতার নাম : খাটমল, গো-জীবন, শুয়োরের দল, কাহাফের কুকুর, মা-মাকড়শা, মাছিরা বোঝে, কাক, পিঁপড়েরা, মাছির স্বভাব, ল্যাংড়া মশার জন্য প্রার্থনা। তবে অন্য বিষয়ের কবিতাও রয়েছে যেমন ঃ শহীদ মিনার দেখে দেখে, পতাকা দোলাও, একটি চেয়ারের গল্প, ফেরেশতার গল্প, কাজী নজরুল ইসলাম, জাতির পিতা, নাত-এ-রসূল, বিপজ্জনক খেলা, ব্যাজস্তুতি প্রভৃতি।

বই প্রকাশের অনুভূতি বলুন?

উত্তর : নতুন বই প্রকাশের আনন্দ এক কথায় প্রকাশ করা কঠিন। পরিবারে একজন নতুন অতিথি অর্থাৎ সন্তান জন্মের আগমনের যে আনন্দ, যে খুশি, নতুন বইয়ের প্রকাশও তদ্রুপ আনন্দের। কবিতা বা অন্য কোন বই প্রথম প্রকাশ পেলে তা কয়েকবার পড়ে তৃপ্তি লাভ করি। বারবার পড়ে পাতা উল্টিয়েও সুখ নিবারণ হয় না।

বইমেলা সম্পর্কে মূল্যায়ন?

উত্তর : বাংলা একাডেমির আমি একজন জীবন সদস্য। প্রতি বছরের মতো এবারও একাডেমি চত্বর ও  সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলা উপলক্ষে প্রচুর স্টল নতুন বইয়ের প্রসরা সাজিয়ে বসেছে। সরকার প্রধানেরা এটির শুভ উদ্ধোধন করে এর গুরুত্ব বাড়িয়ে দেন। এটি একটি ভালো উদ্যোগ। বই পড়ে বই ক্রয় করে জাতি জ্ঞানে ধনী হয়, সংস্কৃতবান হয়। বইমেলা উপলক্ষে প্রতি বছর প্রচুর নতুন লেখকের বই প্রকাশ পায়। ফলে বইমেলা পরোক্ষভাবে লেখক সৃষ্টি করছে পাঠক সৃষ্টি করছে। সমৃদ্ধজাতি সৃষ্টি করছে। শুধু বাংলা একাডেমিই নয় সারা বছর বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের যৌথভাবে বা এককভাবে বইমেলা করা দরকার।

পাঠকদের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন?

উত্তর : বই কিনুন। বই কিনে কেউ দেউলিয়া হয় না। বই কিনে বই পাঠ করুন। অন্যকে বই উপহার দিন। বিশেষ করে বিবাহ অনুষ্ঠানে, জন্ম দিবস পালনে, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রিয়জনদের বই উপহার দেওয়ার রেওয়াজ সৃষ্টি করুন। পূর্বে আমাদের দেশে বিবাহ অনুষ্ঠানে বই উপহার দেওয়ার প্রথা চালু ছিল। এখন আবার ব্যাপকভাবে এই ভালো পদ্ধতিটি চালু করার জন্য সবাইকে অনুরোধ করছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ