শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

যারা বইপ্রেমী ও প্রকৃত পাঠক, তাদের কাছে বই মানেই আকর্ষণ, বই মানেই আনন্দ   --হোসেন মাহমুদ

 

এবারের বইমেলায় আপনার কয়টি বই বের হয়েছে?

উত্তর : এ মেলায় এখনও আমার বই বের হয়নি। ‘দেড় ডজন কিশোর অনুবাদ গল্প’ নামে একটি কিশোর অনুবাদ গল্পের বই ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শিখা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হওয়ার কথা আছে। 

বইয়ের বিষয়বস্তু কি?

উত্তর : এ বইটির গল্পগুলো কিশোরদের জন্য বাছাই করে ইংরেজি থেকে অনুবাদ করা। সব দেশে সব সমাজেই শিশু থেকে কিশোর, কিশোর থেকে তরুণ, তরুণ থেকে যুবক, যুবক থেকে প্রৌঢ়, প্রৌঢ় থেকে বৃদ্ধ হিসেবে মানুষের ক্রম:উত্তরণ ঘটে। শিশুদের কচি মনের নানা রঙের স্বপ্ন-কল্পনা কৈশোরে এসে দানা বাঁধে। মনে আগামী দিনের রেখাচিত্র আঁকা শুরু করে কিশোররা। তাদের এ বয়সকালটি  খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভালো বিদেশী গল্প তাদের চিন্তা-চেতনায় ইতিবাচক ধারণা ফেলতে পারে। এসব গল্পের মধ্যে কিশোর জীবনের স্বপ্ন আছে, অভিযানের নেশার কথা আছে, নীতিবোধ আছে, জীবনবোধে উদ্দীপ্ত হওয়ার প্রেরণা আছে। 

বই প্রকাশের অনুভূতি বলুন?

উত্তর : নিজের কোনো বই প্রকাশ মানেই আনন্দের নতুন অনুভূতি। আমি যে বইটি লিখেছি বা অনুবাদ করেছি তা তো অকারণে করিনি। একটি ভালো, ইতিবাচক উদ্দেশ্য নিয়েই তো লেখক লেখেন, অনুবাদক অনুবাদ করেন। যাদের জন্য তা করা, বইটি প্রকাশ হলে, তাদের হাতে পৌঁছলে তবেই না তারা সে ব্যাপারে জানতে পারবে। তারা বইটি পড়লে, তাদের কাছে ভালো লাগলে লেখক খুশি হন।  আর বই-ই তো পাঠকের সাথে লেখকের সংযোগ ঘটায়। তাই, একটি বই প্রকাশিত হলে লেখকের মন গভীর আনন্দে ভরে ওঠে। 

বইমেলা সম্পর্কে মূল্যায়ন?

উত্তর : বইমেলা নিঃসন্দেহে এক বিরাট ব্যাপার। বই প্রকাশ, বিক্রি, বহু বইয়ের সাথে বইপ্রেমীদের পরিচয়, লেখক-পাঠক সংযোগ প্রতিষ্ঠা ইত্যাদি অনেক কিছু বইমেলার সাথে জড়িত। আগের চেয়ে বইমেলার পরিসর, বই প্রকাশের সংখ্যা, স্টল, পাঠকের উপস্থিতি সবই ব্যাপকভাবে বেড়েছে। বইমেলা পরিণত হয়েছে আগ্রহ ও আকর্ষণের শ্রেষ্ঠ স্থানে। একুশের বইমেলা মানে বইপ্রেমীদের মিলন মেলা। বই যে মানুষের কত ভালো লাগার বিষয় একুশের বইমেলা তার দৃষ্টান্ত। বই মানুষের জীবনকে বদলে দেয়।  শুধু কী বড়রা, বইয়ের জন্য শিশুদের আগ্রহও চোখে পড়ার মতো। আমাদের চারপাশে কত ক্ষতিকর কিছু রয়েছে।  বইয়ের প্রতি প্রেম ও বই পড়া কোনোটিই তো ক্ষতিকর কিছু নয়। এ বইমেলা বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছাড়িয়ে গোটা বাংলাদেশেই বিস্তৃত হোক। মহান একুশে ফেব্রুয়ারি , স্বাধীনতা দিবস ও বিজয় দিবসে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে দশদিন-এক সপ্তাহের বইমেলার আয়োজন করার উদ্যোগ নেয়া যেতে পারে। এটা প্রকাশক-লেখক-পাঠক সবার জন্যই আনন্দজনক হবে। 

প্রশ্ন-৫: পাঠকদের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন?

উত্তর : যারা বইপ্রেমী ও প্রকৃত পাঠক, তাদের কাছে বই মানেই আকর্ষণ, বই মানেই আনন্দ। কথা হচ্ছে, যারা পাঠক আছেন, যারা ভালো বই চান, তাদের কাছে ভালো বই পৌঁছতে হবে। অন্যদিকে ভালো বই কেনা ও পড়া পাঠকের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। পাঠকের বিষয় বা রুচি পার্থক্য আছে, সে অনুযায়ী তারা বই কেনেন। সাধ্যমত বই কেনার অভ্যাস পাঠকের থাকা উচিত। পড়তে হলে কিনতে হবে। তারা সহানভূতি জানাতে নয়, পড়ার আগ্রহেই লেখকের বই কিনবেন। পাঠক বই শুধু নিজেই পড়বেন না, অন্যদেরও তা পড়ার সুযোগ দিতে পারেন। নিজে বই কিনবেন, অন্যদেরও বই কিনতে উৎসাহিত করতে পারেন। বই মানবতা, ভ্রাতৃত্ব, সম্প্রীতির শাশ্বত বাণী ছড়িয়ে যাক।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ