মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

আনোয়ারাকে বাঁচাতে এক অসহায় পিতার আর্তি

মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কী মানুষ পেতে পারে না? অমীয় এই কথাগুলো আজো দাগ কাটে মানুষের মনে। কথা গুলো শুনলে বা পড়লে আজো জাগ্রত হয় মানুষের বিলুপ্তপ্রায় মনুষত্ব। ভেজালে ভরা এই পৃথিবীতে আজ মায়া-মমতার বড়ই অভাব। মানবতা আজ যেন অমাবশ্যার চাঁদের ন্যায় হয়ে গেছে। তারপরও মাঝে মাঝে মানবতার কিছু জলন্ত উদাহরণ তৈরী করে অমর হয়ে মানুষের মনে একটি বিশেষ জায়গা করে নেয় কতিপয় মানবতাবাদী মানুষ। এতেই বুঝা যায়, মানবতাবোধ আজো রয়েছে মানুষের মনে। তাই আসুন আরেকটি মানবতার নতুন উদাহরণ তৈরীতে সকলে একসাথে প্রচেষ্টা চালাই। হতে পারে, আমার আপনার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টার যোগফলই বাঁচিয়ে তুলতে পারে এক অসহায় মেয়েকে। যার কথা বলছিলাম, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১৫ নং লালানগর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের দিনমজুর আবদুল জলিলের মেয়ে আনোয়ারা বেগমের কথা। সে একটি মারাত্মক ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। ইতিমধ্যে দেশের ছোট-বড় প্রায় সব হাসপাতালেই সে চিকিৎসা নিয়েছে। এখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন। ডাক্তার জানিয়েছেন, আমাদের চেষ্টার কোন ত্রুটি রাখছি না। তবে তাকে বাঁচাতে হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুততর সময়ের মধ্যে ভারতে নিয়ে যেতে হবে। ডাক্তারের কথা শুনে দরিদ্র পিতার মাথায় যেন আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে। সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিটি কোমর ভেঙ্গে বাড়ীতে বসে দিন যাপন করছে। ২ ছেলে ও তিন মেয়ের নানা আবদার মেটাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন প্রতিনিয়ত। তার উপর মেয়ের এই জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ায় চিকিৎসা করাতে গিয়েও করে ফেলেছেন প্রচুর ধার-দেনা। আনোয়ারার মমতাময়ী মাও যেন নিস্তব্ধ হয়ে গিয়েছেন। ঘুমোতে গেলেই মেয়ের কথা ভেবে যেন আৎকে উঠেন তিনি, নানা দুঃস্বপ্নেই যেন ঘুম ভাঙ্গে বারবার। মেয়েকে বাঁচাতে তাই আকুল আবেদন জানিয়েছেন সমাজের হৃদয়বান বিত্তবানদের প্রতি। তাই আসুন সকলে নিজেদের সাধ্যমত একটু সহানুভূতির হাত বাড়াই। আপনার একটু সহানুভূতিই পারে একটি প্রাণ বাঁচাতে। সহযোগিতা পাঠাতে পারেন- নামঃ আনোয়ারা বেগম (২২) পিতাঃ আবদুল জলিল, মাতা: নুর বাহার, ঠিকানাঃ রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১৫ নং লালানগর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের দিন মজুর আবদুল জলিলের মেয়ে। যোগাযোগে: ০১৮২৪৮৯৯৫৫২, বিকাশ নম্বর ০১৮৭৫৩৭৮২৪৩। রাঙ্গুনিয়া রোয়াজার হাট শাখার সোনালী ব্যাংক হিসাব নং- ০৮২৪৩০১০১০৮৮৭। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ