বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

কুমিল্লার কাছে হেরে চিন্তা বাড়ল ঢাকার

স্পোর্টস রিপোর্টার : প্লে-অফে খেলার পথটা একটু কঠিন হয়ে গেল ঢাকা ডায়নামাইটসের। তবে আশা মোটেও শেষ হয়ে যায়নি। নিজেদের শেষ ম্যাচে খুলনাকে হারাতে পারলে শেষ চারে খেলার সুযোগ থাকবে ঢাকার সামনে। অবশ্য গতকাল জিতলেই প্লে-অফ পথটা পরিস্কার হয়ে যেত। কিন্তু কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে মাত্র ১ রানে হেরে গেছে ঢাকা ডায়নামাইটস। এই জয়ে ১১ খেলা শেষে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে উঠলো কুমিল্লা। সমানসংখ্যক ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চমস্থানে ঢাকা। এই হারে অপেক্ষার থাকগে হচ্ছে দলটিকে। লিগ পর্বে এখনো একটি ম্যাচ বাকী আছে ঢাকার। প্লে-অফে খেলতে হলে আজ খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে নিজেদের শেষ ম্যাচে জিততেই হবে ঢাকাকে। হারলে এবার লিগ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হবে গতবারের রানার্স-আপ সাকিবের দলকে। গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে  ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় ঢাকা ডায়নামাইটসের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ওপেনার তামিম ইকবালের ব্যাটিং দৃঢ়তায় শুরুটা ভালোই ছিলো কুমিল্লার। তবে অন্যপ্রান্ত দিয়ে উইকেট পতন হতে থাকে কুমিল্লার। অষ্টম ওভারে উইকেট পতনের তালিকায় নাম তুলেন তামিমও। ব্যক্তিগত ৩৮ রানে থেমে যান তিনি। তার ২০ বলের ইনিংসে ৪টি চার ও ২টি ছক্কা ছিলো। তামিমের পর পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদি ১৮, মেহেদি হাসান ২০, শহিদ আফ্রিদি ১৮  ও ওয়াহাব রিয়াজ ১৬ রান করে আউট হন। ঢাকার পেসার রুবেল হোসেন  ৩০ রানে ৪ উইকেট নেন। জয়ের জন্য ১২৮ রানের টার্গেটে ২৯ রানে মধ্যে চার ব্যাটসম্যানকে হারায় ঢাকা। মিজানুর রহমান ১৬, শ্রীলংকার উপুল থারাঙ্গা শুন্য, রনি তালুকদার ১ ও অধিনায়ক সাকিব ৭ রান করে ফিরেন। এরপর দলকে খেলায় ফিরিয়েছিলেন দুই মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান ওয়েস্ট ইন্ডিজের সুনীল নারাইন ও কাইরন পোলার্ড। পঞ্চম উইকেটে ৪২ রানের জুটি গড়েন তারা। ২২ রান করে নারাইন ফিরলেও, ঢাকার রানের চাকা সচল রেখেছিলেন পোলার্ড। কিন্তু ব্যক্তিগত ৩৪ রানে তিনিও ফিরে যান। ফলে ম্যাচ নিয়ে চিন্তায় পড়ে যায় ঢাকা। তারপরও ঢাকার শেষ ভরসা হিসেবে উইকেটে ছিলেন মারকুটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আন্দ্রে রাসেল। লোয়ার-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ম্যাচের সমীকরন শেষ ওভারে নিয়ে যান রাসেল। ম্যাচ জিতে শেষ ওভারে ১৩ রান প্রয়োজন পড়ে ঢাকার । কুমিল্লার পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের প্রথম চার ডেলিভারি থেকে মাত্র ১ রান আসে। পঞ্চম বলে ছক্কা মেরে শেষ বলে ম্যাচ জয়ের সমীকরন ৬ রানে নিয়ে আসেন রাসেল। কিন্তু সাইফউদ্দিনের শেষ বলের ইর্য়কার থেকে বাউন্ডারি মারতে পারেন রাসেল। তাই ৯ উইকেটে ১২৬ রান তুলে মাত্র ১ রানে ম্যাচ হারে ঢাকা। কুমিল্লার সাইফউদ্দিন ২২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: ২০ ওভারে ১২৭ (তামিম ৩৮, লুইস ৮, এনামুল ০, ইমরুল ৭, শামসুর ২, আফ্রিদি ১৮, থিসারা ৯, সাইফ ২, মেহেদি ২০, ওয়াহাব ১৬, মোশাররফ ৪*; শাহাদাত ১-০-১২-০, শুভাগত ৩-০-১৪-১, রাসেল ৪-০-২২-০, নারাইন ৪-০-২৫-২, রুবেল ৪-০-৩০-৪, সাকিব ৪-০-২৩-২)

ঢাকা ডায়নামাইটস: ২০ ওভারে ১২৬/৯ (মিজানুর ১৬, থারাঙ্গা ০, রনি ১, সাকিব ৭, নারাইন ২২, পোলার্ড ৩৪, রাসেল ৩০*, সোহান ০, শুভাগত ৪, রুবেল ০, শাহাদাত ১*; সাইফ ৪-১-২২-৪, মেহেদি ৪-০-২২-২, ওয়াহাব ৪-০-২২-১, মোশাররফ ৩-০-২৩-১, থিসারা ১-০-৩-০, আফ্রিদি ৪-১-২৭-১)

ফল: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ১ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ