বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

চট্টগ্রাম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ২য় চিটাগাং আইটি ফেয়ার-২০১৯ এর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

চট্টগ্রাম ব্যুরো : দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি ও সোসাইটি অব চিটাগাং আইটি প্রফেশনালস (এসসিআইটিপি)’র যৌথ আয়োজনে ৩দিনব্যাপী ২য় চিটাগাং আইটি ফেয়ার-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান গতকাল ২৬ জানুয়ারি সকালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি   শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি, চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ ও সোসাইটি অব আইটি প্রফেশনালস’র সভাপতি আবদুল্লাহ ফরিদ বক্তব্য রাখেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে চেম্বার পরিচালকবৃন্দ কামাল মোস্তফা চৌধুরী, ছৈয়দ ছগীর আহমদ ও সরওয়ার হাসান জামিল, এসসিআইটিপি’র সহ-সভাপতি তামিম ওয়াহেদ আল-হেলাল, মহাসচিব সাইফুল ইসলাম মাহিন, মেলার স্পন্সর লিংক থ্রি’র সিনিয়র ম্যানেজার ফয়সাল বিন আমিন, ক্লাউড ওয়ান’র ডিরেক্টর এন্ড সিইও কামরুল হাসান ফরহাদ, মেলায় অংশগ্রণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিনিধিগণ, সরকারি কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন সেক্টরের ব্যবসায়ী নেতৃবর্গ এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথি শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি দেশের চলমান অর্থনীতির অগ্রযাত্রায় শিল্প ও বন্দরনগরী চট্টগ্রাম বিশেষ অবদান রাখছে উল্লেখ করে বলেন-এতদসত্ত্বেও অত্র অঞ্চল তথ্যপ্রযুক্তিখাত, ই-কমার্স এবং এ খাতের ব্যবসায় যথেষ্ট পিছিয়ে আছে। চট্টগ্রামে এখনো পর্যন্ত তথ্যপ্রযুক্তিকে আলাদা ব্যবসায়িক খাত হিসেবে গ্রহণ করা হচ্ছে না। তথ্যপ্রযুক্তিকে ব্যবসা হিসেবে গ্রহণ করার মত সচেতনতা সৃষ্টি হলে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা এ খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী হবেন। এক্ষেত্রে চিটাগাং চেম্বার বিশাল ভূমিকা পালন করে আসছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন-চট্টগ্রামের বেশীর ভাগ ব্যবসায়ী সনাতন পদ্ধতি অবলম্বন করে আসলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক জ্ঞান না থাকলে ব্যবসায়িক ঐতিহ্য ধরে রাখা কঠিন হবে।  আইটিভিত্তিক ব্যবসার জন্য যে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক অবকাঠামো প্রয়োজন তা চট্টগ্রামে পর্যাপ্ত নয়। তিনি আইসিটির ব্যবহার ব্যাপক পরিমাণে বৃদ্ধির লক্ষ্যে টেলিফোন কোম্পানীগুলোকে চট্টগ্রামে সঠিক তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক সুযোগ সুবিধা প্রদানের আহবান জানান। পাশাপাশি আমদানি-রপ্তানি কাজে নিয়োজিত ব্যবসায়ীরা তথ্যপ্রযুক্তির ভিত্তিতে ব্যবসা পরিচালনা করলে দেশ এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী বর্তমান সরকারের সুদূরপ্রসারী সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার কারণে সরকারি কাজে প্রযুক্তির ব্যবহারে বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে জানিয়ে এ খাতে বিনিয়োগকারী ও পেশাজীবিদের মধ্যে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন।
চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-তথ্যপ্রযুক্তি খাতে আমাদের যে অপার সম্ভাবনা রয়েছে তাতে করে ভবিষ্যতে তৈরী পোশাক খাতকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে। তথ্যপ্রযুক্তির প্রচলন ও ব্যবহার বৃদ্ধির মাধ্যমে ব্যবসায়ে উৎপাদনশীলতা বহুগুণ বৃদ্ধি করা সম্ভব। তবে  এ জন্য আমাদের দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনশক্তি প্রয়োজন। কর্মমুখী সক্ষমতার অভাবে আমাদের সুবিশাল শিক্ষিত যুবসমাজকে কার্যকরভাবে কাজে লাগানো সম্ভব হচ্ছে না। তাই প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্রের মধ্যে সমন্বয় প্রয়োজন। এ খাতের সম্ভাবনাকে অনুধাবন করে চিটাগাং চেম্বার বিভিন্ন সময় আইটি খাতের উন্নয়নে প্রশিক্ষণ, সেমিনার, মেলা ইত্যাদি আয়োজন করে আসছে। 
 চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ চট্টগ্রামকে সত্যিকার অর্থে বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে তথ্যপ্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারসহ সবাইকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান। অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি ফিতা কেটে মেলার উদ্বোধন করেন এবং মেলা পরিদর্শন করেন। উল্লেখ্য, এই মেলা আগামী ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০.০০ টা থেকে রাত ৮.০০ টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ