বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

সখিপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে মারামারির ঘটনায় একজনের মৃত্যু

সখিপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা (১৯ জানুয়ারী) : টাঙ্গাইলের সখিপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে মারামারির ঘটনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় শরিফ মিয়া(৩৫) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা মেডিকেলে দীর্ঘ ১২দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার মারা যায়। সে উপজেলার বেড়বাড়ি রতনপুর গ্রামের শামসুদ্দিনের ছেলে।
জানা গেছে,গত ১১ জানুয়ারী/১৯ইং বেড়বাড়ি ও রতনপুর এলাকায় পারিবারিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারধরের ঘটনার শিকার সাখাওয়াৎ হোসেন লিটন বাদী হয়ে আসামী করে সখিপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এ মামলাটিই হত্যা মামলা হিসাবে গৃহীত হবে বলে থানা পুলিশ জানায়। পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলা যাদবপুর গ্রামের মনির হোসেনের সঙ্গে তার স্ত্রী নাসিমা বেগম (৩০) এর পারিবারিক কলহ ছিল। এ ঘটনায় গত ৫ জানুয়ারী নাসিমা তার স্বামীর বাড়ি থেকে একই এলাকায় তার বোন এবং দুলাভাই আ.রাজ্জাকের বাড়িতে চলে আসে। পরে ঘটনাটি পারিবারিকভাবে মীমাংসার জন্য মনির হোসেন ও তার ভাই সাখাওয়াৎ হোসেন লিটনকে আব্দুর রাজ্জাকের বাড়িতে ডাকা হয়। গত ৬জানুয়ারী সাখাওয়াৎ হোসেন লিটনসহ বেশ কয়েকজন ঐ বাড়িতে গেলে তাদের আটক রেখে বেধড়ক মারধোর করা হয় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।
এতে নিহত শরিফ ছাড়াও চারজন গুরুতর আহত হয়। মামলায় আব্দুর রাজ্জাক সহ ১০জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলার বাদী সাখাওয়াৎ হোসেন লিটন জানান,মারধরের সময় আব্দুর রাজ্জাক ও তার লোকজন আমাদের ৬টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে। বর্তমানে মোটরসাইকেলগুলো থানা হেফাজতে রয়েছে। অন্যদিকে ঘটনার পর পরই আব্দুর রাজ্জাক উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে। সখিপুর থানার এসআই বদিউজ্জামান বলেন,এ ঘটনায় ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ