শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

তালা উপজেলা পরিষদের সরকারী কোয়াটার জরাজীর্ণ ॥ যে কোন মুহূর্ত্বে ধসে প্রাণহানির আশংকা ! 

এম এ ফয়সাল, (তালা) সাতক্ষীরা :  সাতক্ষীরার তালা উপজেলা পরিষদের সরকারী কোয়াটারগুলো বসবাসের অযোগ্য  হয়ে পড়েছে। জরাজীর্ণ ভবনের প্লাস্টার ও ছাদ খসে পড়ছে। তারপরেও ৭/৮ টি পরিবার জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে বসবাস করছে। যে কোন মুহূর্তে  ধসে  প্রাণ ঘটতে পারে। জানাযায়, ১৯৮৩ সালে তালা উপজেলা পরিষদের সকল দাপ্তরিক ভবন সহ কর্মকর্তাদের বসবাসের জন্য দ্বিতল বিশিষ্ঠ ৬টি আবাসিক ভবন নির্মান করা হয়। যেখানে ২৪টি পরিবার বসবাস যোগ্য।  কিন্ত ২০০০ সালের পর থেকে কয়েক বছর জলাবদ্ধতার কবলে বছরের প্রায় ৪/৫ মাস পানিতে তলিয়ে থাকতো উপজেলা চত্ত্বরসহ আশপাশের এলাকা। ফলে উপজেলা পরিষদ ভবন, বিভিন্ন দাপ্তরিক ভবন ও আবাসিক ভবনগুলো জরাজীর্ণ এবং বসসাসের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে । বর্তমানে ভবনগুলো একেবারে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় থাকলেও তা পরিত্যাক্ত ঘোষনা না করায় কয়েকটি পরিবার ঝুকি নিয়ে বসবাস করছে ঐ ভবনে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারও বাস ভবনটিও ঝুঁকিমুক্ত নয়। সববাস যোগ্য না হওয়ায় সরকারী রাজস্ব আদায় হচ্ছেনা। অপরদিকে অর্থ সংকটে থাকায় নির্মিত বা সংস্কার হচ্ছে না এসব ভবনগুলো। দিনদিন বাড়ছে ঝুকির মাত্রা। অতিদ্রুত পদক্ষেপ না নিলে ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। বিষয়টি নিয়ে উদিগ্ন রয়েছে এলাকার সচেতন মহল। সরেজমিন গিয়ে বসবাসরত কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানাযায়, ভবনগুলি একেবারে বিধ্বস্ত হয়ে রয়েছে। বাহিরে সুবিধাজনক জায়গা না পাওয়ায় স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ঝুকি নিয়েই বসবাস করতে হচ্ছে। তবে প্রশাসনিক কর্মকর্তারা লিখিত ভাবে না জানালেও মৌখিকভাবে পরিত্যক্ত ঘোষনার কথা জানিয়েছেন।  তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরীন জানান, ভবনগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে এবং কয়েকটি পরিবার ঝুকি নিয়ে বসবাস করছে। দ্রুত মিটিং ডেকে পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হবে।  তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার জানান, পানিবদ্ধতার কারণে উপজেলা পরিষদের সকল দাপ্তরিক ভবনসহ আবাসিক ভবনের বর্তমানে জরা-জীর্ণ অবস্থা। মৌখিক ভাবে পরিত্যাক্ত ঘোষনা করা হয়েছে। জেলা সমন্বয় সভায় উপজেলা পরিষদের অবকাঠামো উন্নয়নের বিষয় কয়েকবার আলোচনা হয়েছে। তবে উপজেলা পরিষদের অবকাঠামো উন্নয়নে বিষয়টি জরুরী হয়ে পড়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ