শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

কয়রার গড়িয়াবাড়ি লঞ্চঘাটে পন্টুন না থাকায় জন দুর্ভোগ চরমে

খুলনা অফিস : খুলনার কয়রা উপজেলার কয়রা সদর ও উত্তর বেদকাশি ইউনিয়নের সিমানা সংলগ্ন গড়িয়াবাড়ি লঞ্চঘাটে পন্টুন না থাকায় বছরের পর বছর যাত্রীদের কাদা পানিতে নেমে লঞ্চে উঠতে হচ্ছে। যে কারনে জরুরী ভিত্তিতে পন্টুন স্থাপনের দাবি তুলছে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ।  সরেজমিন দেখা গেছে, গড়িয়াবাড়ি লঞ্চঘাট থেকে নিয়মিত খুলনা থেকে লঞ্চ আসা-যাওয়া করে। যোগাযোগের এক মাত্র অবলম্বন লঞ্চ। এখানে যাতায়াতের শেষ ভরসা লঞ্চ কিংবা ট্রলার। কিন্তু প্রতিদিন শত শত যাত্রীর লঞ্চে উঠতে হয় প্রচুর কাদা আর হাঁটুসমান পানিতে নেমে।  ৬নং কয়রা গ্রামের আছাদুল লস্কর বলেন, উপজেলার গড়িয়াবাড়ি লঞ্চঘাট টি কাদা পানিতে যাত্রিরা লঞ্চে উঠতে চায়না তার পরেও মালা মাল উঠা নামানো রয়েছে আরও সমস্যা এত কিছুর পরেও যাতায়াতের অন্য কোন ব্যবস্থা না থাকায় ভোগান্তীর মধ্যে দিয়ে লঞ্চে উঠা ছাড়া উপায় নেই।
স্থানীয় ইউপি সদস্য হরেন্দ্রনাথ মন্ডল ও রেজাউল করিম কারিম বলেন, শুধু উত্তর বেদকাশি ও কয়রার লোকজন এই ঘাট দিয়ে চলাচল করেনা অন্য এলাকার লোকজন এই ঘাট দিয়ে যাতায়াত করে থাকেন।
উত্তর বেদকাশি ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, গড়িয়াবাড়ি লঞ্চ ঘাটে পন্টুন না থাকায় কখনো হাঁটুসমান আবার কখনো কোমরসমান পানিতে নেমে লঞ্চ কিংবা ট্রলারে উঠতে হয় নারী, পুরুষ, শিশু ও বৃদ্ধদের। তিনি জরুরি ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট গড়িয়াবাড়ি লঞ্চঘাটে একটি পণ্টুনের ব্যাবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ