বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে দাঁড়ালো পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক : তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়া পাকিস্তান প্রথম ওয়ানডে জিতেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পাঁচ উইকেটের দারুণ জয়ে পাঁচ ম্যাচে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সরফরাজ আহমেদরা।পোর্ট এলিজাবেথে প্রথমে ব্যাট করা প্রোটিয়ারা হাশিম আমলার সেঞ্চুরির সুবাদে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান তোলে। জবাবে পাঁচ বল হাতে রেখে ইমাম-উল-হক ও মোহাম্মদ হাফিজের ব্যাটে চড়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারীরা।২৬৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করে পাকিস্তান। উদ্বোধনীতে ইমামের সঙ্গে ৪৫ রানের জুটি গড়ে পরে ডুয়ানে অলিভিয়েরার বলে ব্যক্তিগত ২৫ রানে ফেরেন ফখর জামান। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে পার্টনারশিপ আরও লম্বা হয়। 

এবার ইমামের সঙ্গী বাবর আজম। ৯৪ রানের এই জুটি ভাঙেন রেজা হেনড্রিকস। হাফসেঞ্চুরি বঞ্চিত বাবর (৪৯) ৬৯ বল খেলে বোল্ড হন। পরের ব্যাটসম্যান হাফিজের সঙ্গে ছোট জুটি গড়ে দলীয় সর্বোচ্চ ৮৬ রানে ফেরেন ইমাম। ১০১ বলে পাঁচটি চার ও দুটি ছক্কা নিজের ইনিংস সাজান এই বাঁহাতি। শেষদিকে দারুণ ব্যাটিং করে অপরাজিত থেকেই দলকে জেতান অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান হাফিজ। ৬৩ বলে ৮টি চার ও দুটি ছক্কায় ৭১ করেন তিনি।টসে জিতে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়া ওপেনার আমলা ও হেনড্রিকসও শুরুটা দারুণ করেন। তবে মন্থর উইকেটে রান আসে খুব ধীরে। তাদের ৮২ রানের জুটি ভাঙেন শাদাব খান। ৪৫ রান করা হেনড্রিকসকে ফেরান। এরপর অভিষিক্ত রাসে ভ্যান ডার ডুসেনের সঙ্গে ১৫৫ রানের জুটি গড়েন আমলা। 

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৭তম সেঞ্চুরির করে ১০৮ রানে অপরাজিত থাকেন সিনিয়র এই ব্যাটসম্যান। ১২০ বলে ৭টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান তিনি। কিন্তু অভিষেকে সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন ডুসেন। হাসান আলীর বলে আউট হওয়ার আগে ১১৯ বলে ৬টি চার ও তিনটি ছক্কায় ৯৩ করেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ