শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

টানা দরপতনের মধ্যেও বেড়েছে লেনদেন

স্টাফ রিপোর্টার: সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। এ নিয়ে টানা দুই কার্যদিবস দরপতন হলো শেয়ারবাজারে। তবে দরপতন হলেও বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) দুই বাজারেই বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। এদিকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পাঁচটি কোম্পানির শেয়ার দাম কোনো কারণ ছাড়াই অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে বলে বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করেছে ডিএসই।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে এক হাজার ১১ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় এক হাজার কোটি ৫২ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১১ কোটি চার লাখ টাকা। লেনদেন কিছুটা বাড়লেও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১১৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ১৯৬টির। আর ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৩ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৮২৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় ১২ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৩০৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় সাত পয়েন্ট কমে দুই হাজার ৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে এসএস স্টিলের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩৮ কোটি ১৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা খুলনা পাওয়ারের ২৬ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২১ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড ফাইন্যান্স। লেনদেনে এরপর রয়েছে- অ্যাকটিভ ফাইন্যান্স, জেএমআই সিরিঞ্জ, সন্ধানী লাইফ ইনস্যুরেন্স, ফার্স্ট ফাইন্যান্স, সোনার বাংলা ইনস্যুরেন্স, ব্র্যাক ব্যাংক এবং অলিম্পিক।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ২২ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৭৯০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। লেনদেন হয়েছে ৪৯ কোটি ৯২ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৭৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯০টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ১৫৮টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির।

পাঁচ কোম্পানিকে সতর্ক করলো ডিএসই: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পাঁচটি কোম্পানির শেয়ার দাম কোনো কারণ ছাড়াই অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে বলে বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করেছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ।

গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসই থেকে এ পাঁচটি কোম্পানির বিষয়ে পৃথক পৃথক পাঁচটি বার্তা প্রকাশ করা হয়। ডিএসই জানিয়েছে, কোম্পানিগুলোর শেয়ারের অস্বাভাবিক দাম বাড়ার পেছনের কারণ জানতে চেয়ে গত ১৬ জানুয়ারি নোটিশ পাঠানো হয়। এর জবাবে প্রতিটি কোম্পানির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যে অস্বাভাবিক দাম বেড়েছে তার জন্য তাদের কাছে অপ্রকাশিত কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই। কোম্পানির তথ্য অনুযায়ী, কোনো প্রকার মূল্য সংবেদনশীল তথ্য না থাকার পর শেয়ার দাম অস্বাভবিক হারে বাড়া পাঁচটি কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্স, বিডি ওয়েল্ডিং, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স এবং সায়হাম টেক্সটাইল।

কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্স : ৭ জানুয়ারি থেকে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫ টাকা ২০ পয়সা। বিডি ওয়েল্ডিং : জেড গ্রুপের কোম্পানিটির শেয়ার দাম ১৪ থেকে ১৬ জানুয়ারি এই দুই কার্যদিবসে বেড়েছে ৩ টাকা। বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স : ৭ থেকে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫ টাকা ৮০ পয়সা। ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটির শেয়ার দাম ১৪ থেকে ১৬ জানুয়ারি এই দুই কার্যদিবসে বেড়েছে ৬ টাকা ৬০ পয়সা। সায়হাম টেক্সটাইল : কোম্পানিটির শেয়ার দাম ১০ থেকে ১৬ জানুয়ারির মধ্যে বেড়েছে ১০ টাকা ৭০ পয়সা। এ সব লেনদেনকে অস্বাভাবিক বলছে ডিএসই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ