মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

কেশবপুরে প্রতিবন্ধী স্কুল নিয়ে বিরোধে যুবককে জীবননাশের হুমকি

কেশবপুর (যশোর) সংবাদদাতা : যশোরের কেশবপুরের সাতবাড়িয়া বাজারে প্রতিবন্ধী স্কুল করাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে মোবাইল ফোনে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ওই যুবক জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন।
জানা গেছে, উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের শেখ আব্দুল জলিলের ছেলে শেখ সাইফুল¬াহ সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর আতœসামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে সাতবাড়িয়া বাজারে শেখ ফজিলা জলিল অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় নামে একটি প্রতিবন্ধী স্কুল খাড়া করে মন্ত্রলালয়ের অনুমোদন নিয়ে সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে দেয়। পরবর্তীতে এ স্কুলের শিক্ষকদের বেতন ভাতা ধরাতে গিয়ে রান ডেভেলপমেন্ট এর পাতানো ফাঁদে পড়ে তিনি প্রতারিত হন। এরপরও তিনি স্কুলটি চালিয়ে যেতে থাকলে সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এক পর্যায়ে তিনি তার পরিষদের চৌকিদার দিয়ে ওই স্কুলের সাইন বোর্ড খুলে নিয়ে  আসেন এবং সাইফুল¬াহসহ তার পিতাকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও জীবননাশের হুমকি অব্যাহত রাখেন। এমনকি ওই স্কুলের নামে জমি রেজিস্ট্রি করতে গেলেও সাবরেজিস্ট্রি অফিসে সন্ত্রাসী দিয়ে বাধা প্রদান করা হয় বলে অভিযোগ। যার কারণে জমি রেজিস্ট্রি বন্ধ রয়েছে। এদিকে, গত ৫ জানুয়ারী সন্ধ্যায় সাইফুল¬াহ সাতবাড়িয়া বাজারে থাকাকালে কে বা কারা ০১৯৪৬৬১৭৬১৮ নম্বর মোবাইল ফোন থেকে তার ব্যবহৃত ০১৭৩৫৬৭৬৮০১ নম্বর মোবাইল ফোনে অকথ্য ভাষায় গালমন্দসহ জীবননাশের হুমকি প্রদান করে। এ ঘটনায় তিনি নিরাপত্ত চেয়ে ৭ জানুয়ারী কেশবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। যার নং-২৫৭।
এ ব্যাপারে সাতবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সামসুদ্দীন বলেন, সে একটা প্রতারক। ওই স্কুলের নামে বহু লোকের কাছ থেকে     
টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে সাইন বোর্ড খুলে আনা হয়। তবে তাকে কে হুমকি দিয়েছে তা তিনি জানেন না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ