মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ফতুল্লায় পৃথক স্থান থেকে দুই তরুণীর লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় পৃথক দুটি স্থান থেকে দুই তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতদের একজন অজ্ঞাত পরিচয়ের, অপরজন গার্মেন্ট কর্মী বলে জানা গেছে। বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার ভোলাইল ও ঢালীপাড়া এলাকা থেকে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ এ দুটি লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদরের জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, বুধবার দুপুরে ভোলাইল এলাকার নির্জন স্থানে একটি পরিত্যক্ত বাড়ির সামনে ২০/২২ বছর বয়সী এক অজ্ঞাত তরুণীর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। নিহতের পড়নে হলুদ রঙের সালোয়ার ও সাদা প্রিন্টের কামিজ ছিল। তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে পুলিশের ধারণা, এই তরণীকে কেউ শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ নির্জন স্থানটিতে ফেলে রেখে গেছে। তবে  ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। নিহতের পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।
অপরদিকে একই সময়ে পুলিশ ফতুল্লার ঢালীপাড়া এলাকার মাসুদ মিয়ার ভাড়াটিয়া বাড়ির একটি কক্ষের মেঝে থেকে কুলসুম আক্তার (২৫) নামে এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে। কুলসুম ভোলা জেলার লালমোহন থানার রমাগঞ্জ গ্রামের মৃত নুরুন্নবীর মেয়ে। দশ বছর পূর্বে পারিবারিকভাবে মামুনের সঙ্গে কুলসুমের বিয়ে হয়। স্বামী ও ছয় বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান নিয়ে তারা এই ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। কুলসুম একটি গার্মেন্টস কারখানায় কাজ করতো। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মামুন পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 
এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস এম মঞ্জুর কাদের জানান, দুটি ঘটনার বিষয়ে তদন্ত চলছে। লাশ দুটির ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ