বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

কালীগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে শিউলি খাতুন (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার পাষন্ড স্বামী আনিচুর রহমান।
 সোমবার (৭ জানুয়ারি) সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিউলি মারা যায়।
এ ঘটনাটি ঘটে উপজেলার বড় ডাউটি গ্রামে। নিহত শিউলি খাতুন একই উপজেলার দামোদরপুর গ্রামের মৃত সলেমান বিশ্বাসের মেয়ে এবং স্বামী আনিচুর রহমান ডাউটি গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে।
শিউলির ভাই শামিম হোসেন জানান, ১৪ বছর আগে আনিচুর রহমানের সাথে তার বোন শিউলির বিয়ে হয়। তাদের সংসারে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে ২ লাখ টাকার জন্য প্রায়ই তার বোন শিউলিকে মারপিট করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দিত। গত ৬ দিন আগে তার বোনকে ২ লাখ টাকা যৌতুকের  দাবিতে  আনিচুর রহমান মারপিট করে। এতে গুরুত্বর অসূস্থ্য হয়ে পড়লে আমাদের তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। এর পর বৃহস্পতিবার তাকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সোমবার সকাল ন টার সময় সে মারা যায়। শিউলির বিয়ের আগে আনিচুরের আরেকটা বউ ছিল তাকেও এইভাবে যৌতুকের জন্য মারধর করার কারনে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।
নিহত শিউলির ৮ বছর বয়সী মেয়ে সুরাইয়া জানান, প্রায় তার মাকে বাবা মারপিট করতো। গত ৬ দিন আগে অনেক মেরেছিল। ২দিন তার মাকে বাবা খেতেও দেয়নি। আমার বাবা মাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে।
কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সুলতান আহমেদ জানান, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
কালীগঞ্জ থানার ওসি  ইউনুচ আলী জানান, বিষয়টি জানার পর আমি হাসপাতালে গিয়েছিলাম। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং আসামীকে আটকের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ