বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ওয়ার্নারের কাছে ব্যাটিং শিখতে চান আফিফ 

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে যদি হাতে গোনা দু’একজন ব্যাটিং স্পেশালিস্ট থেকে থাকেন নিঃসন্দেহে ওয়ার্নার তাদের মধ্যে অন্যতম। সংক্ষিপ্ত ক্রিকেটে এক দশকের অভিজ্ঞতাপুষ্ট এই রানমেশিন তিনি। তার কাছ থেকে তরুণদের শেখার আছে অনেক কিছুই।

এবারের বিপিএল আসরে সিলেট সিক্সার্সে সেই ওয়ার্নারের দলেই খেলছেন আফিফ হোসেন ধ্রুব। বটবৃক্ষতুল্য এই ব্যাটসম্যানকে একই শিবিরে পেয়ে ব্যাটিং শেখার অনন্য সুযোগটি হাতছাড়া করতে চাইছেন না এই অলরাউন্ডার। গতকাল মিরপুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলনে এসে তিনি বলেন, ‘ওয়ার্নার যেহেতু ওপেনার, ব্যাটিংয়ের দিক থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লে কীভাবে কাজে লাগায়, টপ অর্ডারে কিভাবে ইনিংস গড়ে, এই জিনিসগুলো কাছ থেকে দেখে অনেক কিছু শেখার আছে।

বিপিএলে এবারের আসরের শুরুটা প্রত্যাশিত করতে পারেনি সিলেট সিক্সার্স। তৌহিদ হৃদয়ের ভুলে রান আউটের ফাঁদে পড়ে ডেভিড ওয়ার্নারের ১৪ রানে বিদায় এবং সাব্বির, লিটনদের ব্যর্থতায় ব্যাটিংয়ে ১২৭ রানেই গুটিয়ে গিয়েছিল তাদের ইনিংস। ১২৮ রানের মামুলি লক্ষ্য কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ছুঁয়েছিল ৬ উইকেটের খরচায়।

তবে একটি জায়গায় সিক্সার্সরা সান্ত¡না খুঁজে পেতেই পারে। সেটা হলো, লক্ষ্যটি ছুঁতে স্মিথদের অপেক্ষা করতে হয়েছিল ১৯.৫ বল পর্যন্ত। কারণটিও বেশ স্পষ্ট। ব্যাটিংয়ে আহামরি কিছু করে দেখাতে না পারলেও সিলেটের বোলিং ও ফিল্ডিং ছিল নজরকাড়া। এক পর্যায়ে ম্যাচের পাল্লাও তাদের দিকেই ঝুঁকে পড়েছিল। আর এই বিষয়টিকেই ইতিবাচক হিসেবে নিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসের মোকাবেলা করতে চাইছে সিক্সার্স কন্টিনজেন্ট।

আফিফ যোগ করেন, ‘প্রথম ম্যাচে রান খুব বেশি করতে পারিনি আমরা। তারপরও অনেক লড়াই করেছি। সেটিকে ইতিবাচক হিসেবে নিচ্ছি আমরা। এটিকে ধরে রেখেই পরের ম্যাচে আরও ভালো খেলতে চাই। এভাবেই এগোনোর পরিকল্পনা আমাদের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ