বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

হোটেল রেষ্টুরেন্টে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ॥ পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হচ্ছে গ্রাহক সাধারণ

মাধবদী (নরসিংদী) সংবাদদাতা : মাধবদী পৌর শহর ও বাংলার ম্যানচেষ্টার খ্যাত শেখেরচর বাবুর হাটে শতাধিক হেটেল রেষ্টুরেন্ট রয়েছে। এসব হোটেল ও রেষ্টুরেন্ট মালিকরা এখন বেপরোয়া হয়ে পড়েছে। কারণ দীর্ঘদিন কোন সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক তৎপরতা নেই। ফলে স্বাস্থ্য সুরক্ষার নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে নি¤œমানের খাবার ও বিশুদ্ধ পানির নামে ট্যাঙ্কিতে জমা করা পানি বোতলজাত করে খাবার টেবিলে সরবরাহ করে অতিরিক্ত বিল নিচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। গরুর মাংসের নামে খাওয়ানো হচ্ছে মহিষের মাংস, আর খাসির মাংসের নামে ছাগল ভেড়ার মাংস চড়া মূল্যে খাওয়ানো হচ্ছে প্রায় প্রতিটি সাধারণ ও হাইফাই হোটেল রেস্টুরেন্ট গুলিতে। খোঁজ নিয়ে জানা যায় প্রতিদিনই রাতের আঁধারে মাধবদীতে ময়লার ভাগার ব্রহ্মপূত্র নদের কিনারে অস্বাস্থ্যকর দুষিত পরিবেশে ১০ থেকে ১৫টি মহিষ জবাই করা হয়। এখান থেকে চামড়া ছিলে বিক্রি করে ভোরে সরবরাহ করা হয় কষাই খানা বা মাংস বিক্রেতাদের দোকানে। এ ছাড়াও প্রায় ৮০% হোটেল রেষ্টুরেন্ট এর নেংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ খাবার পরিবেশিত হচ্ছে। ফলে ছড়াচ্ছে নানা রোগ জীবাণু। খাবার শেষ করার পর গ্রাহকের প্লেটটি একটি প্লাস্টিক বা সিলভারের পাত্রে রাখা হয় যা ময়লা ও নোংরা পানিতেই সারা দিন শুধু চুবিয়ে আরেকজনকে সেই প্লেটটিতেই খাবার দিচ্ছে। অন্যদিকে অধিকাংশ হোটেল রেষ্টুরেন্টই রাস্তার পাশে ধুলী বালিযুক্ত পরিবেশে তৈরি করা হয় খাদ্য সামগ্রী। সারাদিন গাড়ি চলাচলের সময় এবং বাতাসে রাস্তার ধুলীবালি তৈরি খাদ্য সামগ্রীতে পড়ছে যাতে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে বাড়ছে নানা রোগ ব্যাধি প্রতিদিনই। ফলে স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলিতে পেটের পীড়া ডায়রিয়া, ডিসেন্ট্রিজনিত রোগীর ভিড় বেড়েই চলেছে বলে জানিয়েছেন কয়েকটি স্বাস্থ্যসেবা ক্লিনিক পরিচালকরা। মাধবদী পৌর কর্তৃপক্ষ আবাসিক হোটেলগুলি বন্ধ করলেও বছরের পর বছর নোংরা পরিবেশে খাদ্যজাত দ্রব্য হোটেলগুলি থেকে কর আদায় করলেও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার পরিবেশন বা পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা এবং স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন নজরদারী লক্ষ্য করা যাচ্ছেনা রহস্যজনক কারণে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানিয়েছেন আক্রান্ত ব্যক্তিবর্গ ও দূর দূরান্ত জেলা থেকে আসা ব্যবসায়িক প্রয়োজনে হোটেল রেষ্টুরেন্টের গ্রাহক  সাধারণগণ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ