বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

রূপগঞ্জে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা গ্রেফতার ৭

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত, দোকানে আগুন, হামলা, ভাংচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী আব্দুল মোতালেব বাদী হয়ে ৭৭ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার কাঞ্চন এলাকা থেকে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন,
উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার ইদ্রিস আলীর ছেলে শাহিন, গুতুলিয়া এলাকার গোলাম মাওলা সরকারের ছেলে আবু সরকার, একই এলাকার মৃত সামসুদ্দিনের ছেলে রফিকুল ইসলাম, হোরগাও এলাকার মৃত আব্দুল মজিদ ফকিরের ছেলে গোলাম মাওলা নয়ন, মাঝিপাড়া এলাকার মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে আব্বাস উদ্দিন, কান্দাপাড়া এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে সোহেল মিয়া, কামসাইর এলাকার আব্দুল করিমের ছেলে বাচ্চু।
মামলার বাদী আব্দুল মোতালেব জানান, তিনি উপজেলার বাগলা এলাকায় বাড়ির সামনে মুদী মনোহরী দোকান দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে ব্যবসা করে আসছে। আব্দুল মোতালেবের কাছ থেকে বেদলী এলাকার দিপু, আমদিয়া এলাকার বাবু ও বাগলা এলাকার আক্তার নগদ ৫০ হাজারটাকা চাঁদা দাবি করেন।
তাদের দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে দিপু, বাবু, আক্তার, আবুল হোসেন, রাজীব, কামাল, ইব্রাহিম মোকা, হযরত আলীসহ অজ্ঞাত ৬০/৭০ জন আব্দুল মোতালেবের মুদী মনোহরী দোকানে প্রবেশ করে তাকে পিটিয়ে আহত করেন।
এসময় চাঁদাবাজরা আব্দুল মোতালেবের দোকানে হামলা ভাংচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়। এতে আব্দুল মোতালেবের দোকানের মালামাল পুড়ে গিয়ে ৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন। এ ঘটনায় আব্দুল মোতালেব বাদী হয়ে দিপু, বাবু, আক্তার, আবুল হোসেন, রাজীব, কামাল, ইব্রাহিম মোকা, হযরত আলীসহ ৭৭ জনকে নামীয় ও অজ্ঞাত ৭০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে মামলা দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানায় রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হক জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। এ মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ