বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

গোমস্তাপুরে নির্বাচনত্তোর সহিংসতায় আহত ১০

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) সংবাদদাতা : চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে নির্বাচনত্তোর সহিংসতায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। রোববার রাত ও সোমবার দুপুর পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিএনপি ও জামায়াত-আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জন গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ১ জন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের কালুপুরও কাশিয়াবাড়ী গ্রামে আওয়ামলীগ কর্মীরা বিএনপি সমর্থকদের কয়েকটি বাড়ি ভাংচুর করে। এছাড়া বাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের শ্যামপুর ও ব্রজনাথপুর ও বিএনপি-জামায়াত ও আওয়ামীলীগ কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় দলের ১০ জন আহত হয়। রহনপুর ইউনিয়নের কাজিগ্রামে বিএনপি  নেতা সোহরাব আলীর বাড়ি ভংচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনত্তোর সহিংসতায় দমনে স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব রায়হান জানান,সোমবার দুপুরে তার নেতৃত্বে যৌথবাহিনী বাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের শ্যামপুর ও ব্রজনাথপুরে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রেখেছে। বর্তমানে ওই এলাকায় পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি মোতায়েন রয়েছে। বাঙ্গবাড়ী ইউনিয়নে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ সোমবার দুপুরে ১১জনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।
রোববার অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ- ২ আসনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী জিয়াউর রহমানের পরাজয় নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয় আওয়ামীলীগ। সোমবার দুপুরে রহনপুর কলোনীমোড়স্থ দলীয় কার্যালয়ের উপজেলা আওয়ামলীগ আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশিদ। এসময় উপস্থিথ ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস,রহনপুর পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল আজিজ ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বিশ্বাস,জেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি মহন্ত ক্ষিতিশ চন্দ্র আচারী,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সেরাজুল ইসলাম টাইগার প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানানো হয় বর্তমান সাংসদ গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আওয়ামলীগ প্রার্থী জিয়াউর রহমানের পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করেছে কিন্তু বিএনপি প্রার্থী আমিনুল ইসলাম অবৈধ কালো টাকা ছড়িয়ে নির্বাচনী জয়লাভ করেছে। বিষয়টি তদন্ত করার জন্য তারা নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ জানিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ