বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

সাদুল্যাপুরে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ১৩ ॥ গ্রাম মানুষ শূন্য

গাইবান্ধা সংবাদদাতা: গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরে জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ম-লের প্রাইভেট কারের ধাক্কায় এক বৃদ্ধা আহতের জের ধরে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় সাদুল্যাপুর থানার এএসআই হেলাল উদ্দিন ও কনস্টেবল আবদুল কাফী আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করীম রেজাসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে সাদুল্যাপুর-মীরপুর সড়কের তরফবাজিত এলাকার রেজা চাতাল সংলগ্ন (নলডাঙ্গা মোড়) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।আটককৃতরা হলেন, জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সাদুল্যাপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করীম রেজা, তার ছোট ভাই সাদুল্যাপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক এশরাফুল কবীর আরিফ ও স্থানীয় পশু চিকিৎসক মঞ্জু মিয়া। এদিকে,তিনজনকে আটকের ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেন স্থানীয়রা। পরে তারা সাদুল্যাপুর থানার সামনে ও চারমাথা মোড়ে অবস্থান নেয়। পরে পুলিশ তাদের সড়িয়ে দেয়। এতে ভয় ও আতঙ্কে সব দোকানপাট বন্ধ করে দেয় ব্যবসায়ীরা। বর্তমানে শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। তবে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, জামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ম-ল প্রাইভেট কারে করে সাদুল্যাপুর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। প্রাইভেট কারটি নলডাঙ্গা মোড়ে পৌঁছালে রাস্তা পার সময় হওয়া সময় এক বৃদ্ধা প্রাইভেট কারের ধাক্কায় আহত হয়। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ম-লের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। এসময় স্থানীয়রা উত্তেজিত হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা পুলিশের ওপর হামলা করলে দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে আহত বৃদ্ধাসহ ইউপি চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ তিনজনকে আটক করে।
সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) এমরানুল কবীর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হামলার ঘটনায় পুলিশের এএসআই হেলাল উদ্দিন ও কনস্টেবল আবদুল কাফী আহত হয়েছেন। আহত দু’জনের অবস্থা গুরুতর। আবদুল কাফীর দুটি দাঁত ভেঙে গেছে। তাদের উদ্ধার করে সাদুল্যাপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আহত বৃদ্ধাকেও হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হামলার অভিযোগে ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে অপ্রতিকর ঘটনা এড়াতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় আটকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।
প্রাইভেট কারের ধাক্কায় বৃদ্ধা আহত হওয়ার কথা স্বীকার করে মোবাইল ফোনে জামালপুরের ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান মন্ডল বলেন, ‘ঘটনার পর আহত বৃদ্ধাকে হাসপাতালে পাঠানোর চেষ্টা করা হলে স্থানীয়রা উত্তেজিত হয়ে উঠেন এবং বাঁধা দেয়। ঘটনাস্থলে পুলিশ আসলে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। পূর্বশত্রুতার জের ধরেই প্রতিপক্ষের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করীম রেজা ও তার পক্ষের লোকজন এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’
তবে পুলিশের উপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আটক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করীম রেজার ছোট ভাই আশরাফুল ইসলাম।
তিনি বলেন,‘হয়রানির উদ্দেশ্যেই পুলিশ প্রভাবিত হয়ে তাদের আটক করেছে।’
এদিকে ,গাইবান্ধার সাদুল্যাপুরে পুলিশের ওপর হামলায় দুই পুলিশ সদস্য আহতের ঘটনায় ২৮৬ জন নারী-পুরুষকে আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছে।
এ ঘটনায় জামালপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করীম রেজা ও সাদুল্যাপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম স্বপনসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
শনিবার (২২ ডিসেম্বর) বিকেলে সাদুল্যাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসেন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় শতাধিক নামিয় ও পৌনে দুই শতাধিক অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।
এদিকে, ঘটনার পর থেকে কয়েক দফায় আসামি গ্রেফতারে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ । পুলিশের গ্রেফতার আতঙ্কে তরফবাজিত গ্রামসহ আশপাশ এলাকায় পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ