রবিবার ১২ জুলাই ২০২০
Online Edition

বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু

দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার বড়পুকুরিয়া কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিট কয়লার অভাবে বন্ধ থাকার ৫ মাস পর গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চালু করা হয়

ফুলবাড়ী সংবাদদাতা : দেশের উত্তর অঞ্চলের দিনাপুরের পার্বতীপুর উপজেলার বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু। দিনাজপুররের বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিটটি কয়লার অভাবে বন্ধ থাকার পর আবার ২য় ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। গত মঙ্গলবার ২৬ শে ডিসেম্বর সন্ধায় তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিট ৫ মাস বন্ধ থাকার পর চালু করা হয়েছে বলে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মহসিমুল ফিরোজ জানিয়েছেন। বড়পুকুরিয়া খনিতে কয়লা লোপাটের ঘটনায় গত ৫ মাস ধরে তাপবিদু্যুৎ কেন্দ্রের ২য় ইউনিট বন্ধ ছিল। বর্তমান তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ২টি ইউনিট করা হয়। বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন কয়লা পাওয়া মাত্র বন্ধ থাকা আর একটি ইউনিট চালু করা হবে। কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মহসিমুল ফিরোজ জানিয়েছেন, বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ৩য় ইউনিট থেকে ১৫০ থেকে ১৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হত এখন ২য় ইউনিট চালু হওয়ায় প্রতিদিন এই কেন্দ্র থেকে জাতীয় গ্রীডে ২২০ থেকে ২৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ হচ্ছে। এই কেন্দ্রের ৩য় ইইনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদক্ষমতা ২৭৫ ও ২য় ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ১২৫ মেগাওয়াট কয়লার অভাবে এখনও বন্ধ রয়েছে একটি ইউনিট। বর্তমান কয়লাখনি থেকে যে কয়লা সরবরাহ করা হচ্ছে তা দিয়েই ২টি ইউনিট চালু করা যাবে বলে গত মঙ্গলবার ২৬ শে ডিসেম্বর সন্ধায় একটি ইউনিট চালু করা হয়। 

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থপনা পরিচালক মোঃ ফজলুর রহমান জানান, বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু রাখার জন্য পর্যাপ্ত পরিমানে কয়লা সরবরাহ করা হচ্ছে। অন্য ইউনিট চালু হলে মজুদ কয়লা সরবরাহ করা হবে। দেশের উত্তর অঞ্চলের ক্ষুদ্র মাঝাড়ি শিল্পগুলো ও কৃষির উৎপাদন বৃদ্ধিতে কয়লা দিয়ে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু রাখা হয়েছে। তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র কয়লার অভাবে আর বন্ধ থাকবে না। সে দিকে আমরা লক্ষ্য রাখছি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ