শনিবার ১১ জুলাই ২০২০
Online Edition

রাজিল তারকা থিয়াগো সিলভার বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিস কি তাহলে ফুটবলারদের জন্য দুঃস্বপ্নের শহরে পরিণত হতে যাচ্ছে? গত মাসেই প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের এক ফুটবলার এরিক ম্যাক্সিম চৌপো মোটিংয়ের বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছিল। নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ভেদ করে ডাকাতের দল প্রবেশ করেছিল এরিকের বাড়িতে এবং মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে গিয়েছিল চোরের দল। এরিক ম্যাক্সিম খুব বড় কিংবা পরিচিত ফুটবলার নন, এ কারণে ওই দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা তেমন একটা জনসমক্ষে আসেনি। কিন্তু এবার যা ঘটলো, তাতে পুরো ফুটবল দুনিয়া কেন, পুরো ফ্রান্সের প্রশাসনের চক্ষু চড়কগাছ। ব্রাজিলিয়ান তারকা ফুটবলার, ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের অধিনায়ক এবং প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভার বাড়িতে একই কায়দায় দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাতে যখন প্যারিসের পার্ক ডি প্রিন্সেসে ফরাসী লিগ ওয়ানে নান্তেসের বিপক্ষে খেলায় ব্যস্ত পিএসজি, তখনই শহরের সবচেয়ে নিরাপদ এবং অভিজাত এলাকায় এই চুরির ঘটনা ঘটলো। পিএসজির প্রতিটি খেলোয়াড়ের বাড়িতে রয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে ক্লাবের পক্ষ থেকেই। থিয়াগো সিলভার বাড়িটিও ছিল প্যারিসের সবচেয়ে নিরাপদ এলাকায়। ১৬ এ্যাঁরোদিসমেন্ট এলাকায় একটি হাই সিকিউরিটি কমেপ্লেক্সে। শুধু সিলভা একাই নয়, ওই কমপ্লেক্সে আরও বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটিও থাকেন। প্যারিসের এল ইকুইপে সংবাদপত্র রিপোর্ট প্রকাশ করেছে, এমন একটি নিরাপত্তা সম্বলিত বাড়িতেই প্রবেশ করে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটালো চোরের দল। তারা সিলভার বাড়িতে প্রবেশ করেছে কমপ্লেক্সের একদম ওপরের তলা বেয়ে। সেখানেও কঠোর ডিজিটাল নিরাপত্তা ব্যবস্থা বিদ্যমান ছিল। কিন্তু চোরের দল সেই ব্যবস্থা অকেজো করে দিয়েছিল। থিয়াগো সিলভার বাড়ি থেকে ১ মিলিয়ন ইউরো (প্রায় ১০ কোটি টাকার) মূল্যের জিনিস-পত্র চুরি করে নিয়ে যায়। যেগুলোর মধ্যে ছিল বেশ কিছু মূল্যবান অলঙ্কার এবং তৈজষপত্র। যেগুলোর মূল্য প্রায় ৬ লাখ ইউরো। প্যারিসের পুলিশ এখন সেই চোরের দলকে খুঁজছে। যদিও কোনো কুল-কিনারা এখনও পর্যন্ত তারা করতে পারেনি। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ